(দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুর জেলার সেতাবগঞ্জ উপজেলার কামাত গ্রামে প্রকাশ্য দিবালোকে এক বর্বরচিত হামলা লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে।
থানা অভিযোগে সূত্রে প্রকাশ দিনাজপুর জেলার সেতাবগঞ্জ উপজেলার ৫নং ছাতইল ইউপি’র ৫নং ওয়ার্ডে কামাত গ্রামে দুপুর ২টায় আব্দুল কুদ্দুসের বাড়িতে পূর্ব শত্র“তার জেরে কামাত গ্রাম সংলগ্ন বিরল উপজেলার নোনাগ্রামের সফিকুল, জামান, লাবু, রেজা, শাহিনা, স্নিগ্ধা, মেহেদী হাসান, রুমি আক্তার ও মজলেসা আকস্মিক উপস্থিতি হয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আব্দুল কুদ্দুসের বাড়ি চিনের চালাঘর, সমগ্র বাড়ির টিনের বেড়া দেশীয় ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাথারী আঘাতে ব্যাপক ভাংচুর চালিয়ে ঘর, বারান্দা ও আঙ্গিনার ৪ লক্ষাধিক টাকার মালামাল ফিল্মি স্টাইলে লুটপাট করে নিয়ে যায়। তৎমুহূর্তে কুদ্দুসের পিতা হামিদকে মেরে পা ভেঙ্গে দিয়ে বিভিন্ন প্রকার ভয়ভীতি ও প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে চলে যায়। এ ঘটনায় সেতাবগঞ্জ থানায় একটি প্রকাশ্যে দিবালোকে বাড়ীঘর ভাংচুর ও মারধর করে লুটপাটের অভিযোগ দায়ের হয়েছে। গত ১৮ সেপ্টেম্বর একই বিষয়ে ১০৭, ১০৪ ও ১১৭ ধারায় দিনাজপুর সিআরপিসি আদালতে একটি মামলা বিচারাধীন রয়েছে। আসামীরা প্রকাশ্যে বীরদর্পে ঘুরে বেড়াচ্ছে অপরদিকে বাদীপক্ষ যে কোন মুহূর্তে প্রাণহানি আতঙ্কে আকঙ্কিত হয়ে দিনযাপন করছে। এ ঘটনায় সমগ্র কামাত পাড়া এলাকায় ব্যাপক আতঙ্ক ও থমথমে অবস্থায় বিরাজ করছে।