আমিনুল ইসলাম (দিনাজপুর২৪.কম) অবশেষে বোদা পাইলট গার্লস স্কুল এন্ড কলেজটি সরকারী করণের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করলেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়। গত কয়েকদিন আগে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক ওয়েবসাইটে সরকারী করণের তালিকায় এ বিদ্যালয়ের নাম চলে আসে। এর পরে স্কুল কমিটি, প্রধান শিক্ষক, শিক্ষিকা, অভিভাবক ও ছাত্রীদের মাঝে আনন্দের বর্ণা বইছে। জানা যায় তৎকালীন এরশাদ সরকারের আমলে প্রথম এ বিদ্যালয় জাতীকরণের ঘোষনা আসে। কিন্তু কিছুদিন পর তৎকালীন সরকার ক্ষমতার পালা বদল হলে সেখানেই থেমে যায় সরকারী করণের প্রক্রিয়া । এর পরে দু’দফা শেখ হাসিনা সরকার ক্ষমতায় আসলেও সারা দেশে বিদ্যালয় ও কলেজকে সরকারী করণের তেমন উদ্যোক নেয়নি সরকার। সে সময় স্থানীয় এমপি এ্যাডঃ নূরুল ইসলাম সুজন বার বার এই প্রতিষ্ঠানটিকে সরকারী করণের জন্য ডিও লেটার দিয়ে জোর তদবির চালান। কিন্তু সে সময় এ বিষয়ে সরকার কোন সিদ্ধান্ত না নিলে আর আলোচনায় আসেনি। শেখ হাসিনা সরকার তৃতীয় বারের বারের মত ক্ষমতায় আসলে প্রত্যেক উপজেলায় একটি করে স্কুল ও কলেজ জাতীকরণের ঘোষনা দেন। এ প্রক্রিয়ায় আবারো ঘুরে ফিরে বোদা পাইলট বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়টির নাম উচ্চারিত হয়। সে অনুযায়ী সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্তে প্রথম দফায় এই বিদ্যালয়টির নাম চলে আসে। কিন্তু পরবর্তীতে কালভদ্রে আবারো সেই নামটি বাদ দিয়ে নতুন একটি বিদ্যালয় ও কলেজের নাম আসে। সম্প্রতি আবারো সরকারের সকল পরিক্ষার ফলাফলম খেলাধুলা, সাহিত্য, সাংস্কৃকিত, মাল্টিমিডিয়া ক্লাস, স্কাউটসহ সবদিক বিবেচনা নিয়ে আবারো এই প্রতিষ্ঠানটি সরকারী করণের প্রক্রিয়া চালুর জন্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ আসে। নতুন করে আবারো নাম আসায় বর্তমান প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা, শিক্ষামন্ত্রী, নূরুল ইসলাম নাহিদ ও স্থানীয় এমপি এ্যাডঃ নূরুল ইসলাম সুজনকে ধন্যবাদ জানান বিদ্যালয় কতৃপক্ষ। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ রবিউল আলম সাবুল জানান, আমরা প্রথম এই প্রতিষ্ঠান। যেটি পঞ্চগড় জেলার (সর্বপ্রথমে ১৯৬৫) নারী শিক্ষাকে এেিয় নিতে এ উপজেলায় কয়েকজনকে বিদ্যাৎসাহী উদ্যোগে গড়ে উঠে প্রতিষ্ঠানটি। আজ নারী শিক্ষার অগ্রগতিতে অন্যন্য এক নাম। বর্তমানে এই প্রতিষ্ঠানটি ফলাফলের দিক থেকে জেলার তৃতীয় এবং উপজেলা পর্যায়ে প্রথম। বর্তমানে বিদ্যালয়টিতে ছাত্রীর সংখ্যা ১৫শ ২৭ জন। এছাড়া এ বিদ্যালয়টিতে আয়তনের দিক দিয়ে কম থাকায় ডাবল শিফট চালু করা হয়। যেটি পঞ্চগড়ে আর কোন নারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চালু করেনি।