(দিনাজপুর২৪.কম) অস্কারের  ৯২তম আসরে সেরা সহ-অভিনেত্রী হলেন লরা ডার্ন। ‘ম্যারেজ স্টোরি’ ছবিতে বিয়েবিচ্ছেদ বিষয়ক নির্দয় আইনজীবীর ভূমিকায় অনবদ্য অভিনয় সুবাদে এ পুরস্কার পান  তিনি। তার হাতে পুরস্কার তুলে দেন গতবারের সেরা সহ-অভিনেতা মাহেরশালা আলি। এবারের অস্কারে সেরা সহ-অভিনেত্রী বিভাগে সবচেয়ে  ফেবারিট ছিলেন লরা ডার্ন। বাফটা, গোল্ডেন গ্লোবস, স্ক্রিন অ্যাক্টরস গিল্ড, ক্রিটিকস চয়েস মুভি অ্যাওয়ার্ডস, ইন্ডিপেন্ডেন্ট স্পিরিট অ্যাওয়ার্ডস জিতে এগিয়ে ছিলেন তিনি।আর একদিন পরেই মার্কিন এ অভিনেত্রীর জন্মদিন। তার আগেই উপহার হিসেবে অস্কার পেলেন তিনি। যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় লস অ্যাঞ্জেলেসের হলিউড অ্যান্ড হাইল্যান্ড সেন্টারের ডলবি থিয়েটারে স্থানীয় সময় ৯ই ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা এবং বাংলাদেশ সময় ১০ই ফেব্রুয়ারি সকালে শুরু হয় অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডসের ৯২তম আয়োজন।

লরা ডার্ন ১৯৬৭ সালের ১০ই ফেব্রুয়ারি ক্যালিফোর্নিয়ার লস অ্যাঞ্জেলেসে জন্মগ্রহণ করেন।

তার বাবা ব্রস ডার্ন ও মা ডায়ান ল্যাড দুজনেই অভিনয়শিল্পী। তার প্র-পিতামহ জর্জ ডার্ন উটাহের সাবেক গভর্নর। তার বাবা-মা যখন দ্য ওয়াইল্ড অ্যাঞ্জেলস চলচ্চিত্রের কাজ করছিলেন, তখন তিনি তার মায়ের গর্ভে আসেন। অভিনয় জীবনে তিনি একটি এমি পুরস্কার ও পাঁচটি গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার অর্জন করেছেন এবং দুটি একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। ১৯৭৩ সালে শিশুশিল্পী হিসেবে মায়ের সঙ্গে হোয়াইট লাইটনিং চলচ্চিত্রে তার বড় পর্দায় অভিষেক হয়। পরের দশকে প্রাপ্তবয়স্ক অভিনেত্রী হিসেবে তিনি মাস্ক (১৯৮৫), স্মুথ টক (১৯৮৫), ব্লু ভেলভেট (১৯৮৬), ওয়াইল্ড অ্যাট হার্ট (১৯৯০) চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন।

১৯৯১ সালে তিনি র্যাম্বলিং রোজ চলচ্চিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। পরবর্তী সময়ে তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্র হলো জুরাসিক পার্ক (১৯৯৩), সিটিজেন রুথ (১৯৯৬), অক্টোবর স্কাই (১৯৯৯), আই এম স্যাম (২০০১), ইনল্যান্ড এম্পায়ার (২০০৬), দ্য মাস্টার (২০১২), দ্য ফল্ট ইন আওযয়ার স্টারস (২০১৪)। ২০১৪ সালে ওয়াইল্ড চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কারে মনোনীত  হন। -ডেস্ক