(দিনাজপুর২৪.কম)বাণিজ্যিক-ভিত্তিতে গত পাঁচ বছরে বৈধ উপায়ে সোনা আমদানি করা হয়নি বলে সংসদকে জানালেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ।
বুধবার জাতীয় সংসদের টেবিলে উপস্থাপিত জাতীয় পার্টির (জাপার) এম এ হান্নানের এক প্রশ্নের জবাবে এই তথ্য জানিয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বিদ্যমান বৈদেশিক মুদ্রা নিয়ন্ত্রণ আইন-১৯৪৭ অনুযায়ী—বাংলাদেশ ব্যাংকের পূর্বানুমোদন গ্রহণপূর্বক বাণিজ্যিক ভিত্তিতে সোনা আমদানি করার সুযোগ রয়েছে।’
তোফায়েল আহমেদ জানান—গত পাঁচ বছরে বাণিজ্যিক ভিত্তিতে সোনা আমদানির জন্য কোনো প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ ব্যাংক বরাবর আবেদনই করেনি। এ সময়ে আমদানিকৃত সোনা থেকে সরকারের কোনো প্রকার রাজস্ব আয়ও হয়নি।
এ দিকে, সরকারি  দলের এমপি সফুরা খাতুনের এক প্রশ্নের জবাবে বাণিজ্যমন্ত্রী সংসদকে জানান—দেশ থেকে বিদেশে সবজি রপ্তানির পরিমাণ দিন-দিন বাড়ছে। গত ২৩ বছরে সবজি রপ্তানি করে ৮৭০ দশমিক ৮৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার আয় হয়েছে (৮৭ কোটি ৮ হাজার ৬০০ ডলার), যা বাংলাদেশি মুদ্রায় ৬,৭৮৪ কোটি ৪ লাখ ২৬ হাজার ৯৩৮ টাকা।
মন্ত্রী জানান—১৯৯১ সাল থেকে প্রথম ১০ বছরে সবজি রপ্তানি করে আয় হয়েছে ১৪৬ দশমিক ৬৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। ২০১২-১৩ অর্থবছরে ১১০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার (১১ কোটি) এবং ২০১৩-১৪ অর্থবছরে ১৪৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের (১৪ কোটি ৭০ লাখ) সবজি রপ্তানি হয়েছে।
হাবিবুর রহমান মোল্লার প্রশ্নের জবাবে তোফায়েল আহমেদ সংসদকে জানান—বাংলাদেশ থেকে বিভিন্ন খাতে ৭২৯টি পণ্য বিদেশে রপ্তানি করা হয়ে থাকে। নজরুল ইসলাম বাবুর প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান—বর্তমানে ভারত, চীন, পাকিস্তান ও মিয়ানমার থেকে চাল আমদানি করা হয়।
দিদারুল আলম চৌধুরীর এক প্রশ্নের জবাবে বাণিজ্যমন্ত্রী সংসদকে জানান—রাজধানীতে মোট ৫৩টি বাজারকে ফরমালিনমুক্ত ঘোষণা করা হয়েছে। এ ছাড়া, ঢাকার বাইরে ১১টি বাজার ফরমালিনমুক্ত করা হয়েছে।(ডেস্ক)