(দিনাজপুর২৪.কম) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও মার্ক জাকারবার্গের কাছে বিলিয়ন ডলারের আসা-যাওয়া অনেকটা নিত্যনৈমিত্তিক বিষয় হয়ে উঠেছে। তথ্য ফাঁস নিয়ে কেলেঙ্কারির ধাক্কায় সবশেষ আহত হয়েছে ফেসবুক।

বুধবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটির শেয়ারে বড় ধরনের পতন হয়। এক তথ্য প্রকাশিত হলে জাকারবার্গের সম্পদের মূল্য ১৮ দশমিক ৮ বিলিয়ন বা ১৮৮০ কোটি ডলার কমে যায়। এতে বিশ্বের চতুর্থ ধনীর স্থানটিও হারিয়ে অষ্টম শীর্ষ ধনীর স্থানে পৌঁছেছেন তিনি। বুধবার ৮২ দশমিক ৪ বিলিয়ন ডলারের সম্পদ দিয়ে দিন শুরু করা মার্কের দিন শেষে সম্পদের মূল্য দাঁড়ায় ৬৩.৩ বিলিয়ন ডলারে।

এর আগে চলতি বছরের জানুয়ারিতে একদিনে ৩৩০ কোটি ডলার হারিয়েছিলেন জাকারবার্গ। তবে তার আগে গত বছরের জুলাই মাসে মাত্র পাঁচ দিনেই সাড়ে তিনশ কোটি ডলারের সম্পদ কামিয়েছিলেন জাকারবার্গ। এবার অবশ্য সব রেকর্ড ছাড়িয়ে বিপুলসংখ্যক অর্থ হারালেন তিনি।

ফেসবুকের প্রবৃদ্ধি কমে গেছে। বিগত বছরগুলোর মধ্যে এবারই ফেসবুকের প্রবৃদ্ধি সবচেয়ে কম। আর এই খবর ছড়িয়ে পড়লেই ফেসবুকের শেয়ারের দাম পড়তে থাকে। বুধবার প্রবৃদ্ধির নিম্নহারের খবর ছড়িয়ে পড়লে ফেসবুকের শেয়ারের দাম পড়েছে প্রায় ১৬ শতাংশ। আর এতে কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই তা ১৮১ দশমিক ৮৯ ডলারে দাঁড়ায়। আসলে ফেসবুকের বিপুল পরিমাণ শেয়ার রয়েছে জাকারবার্গের মালিকানায়। আর এ কারণে ফেসবুকের শেয়ারের দাম কমলে জাকারবার্গের সম্পদের পরিমাণও কমে যায়।

এক প্রতিবেদনে বলা হয়, তথ্য ফাঁস ও ভুয়া খবর কেলেঙ্কারির জেরে আয়ের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে পারেনি ফেসবুক। এমনকি দৈনিক সক্রিয় ব্যবহারকারীর যে পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছিল, তাও স্পর্শ করতে পারেনি যোগাযোগ মাধ্যমটি। গত কয়েকবছর ফেসবুকের আয়ে এমনটি হয়নি। ২০১৫ সালের পর এই প্রথম কোম্পানিটির বিশ্লেষকদের প্রত্যাশা পূরণ করতে পারেনি।

ফেসবুক বলছে, প্রায় ২৫০ কোটি মানুষ প্রতি মাসে সক্রিয়ভাবে তাদের অ্যাপগুলো ব্যবহার করছেন। তবে শুধু ফেসবুকে দৈনিক সক্রিয় ব্যবহারকারী গত বছরের চেয়ে ১১ শতাংশ বেড়েছে। ওয়াল স্ট্রিট যে পূর্বাভাস দিয়েছিল, এটি তার চেয়ে কম। ইউরোপে দৈনিক সক্রিয় ব্যবহারকারী গত প্রান্তিকের চেয়ে ২ কোটি ৮২ লাখ কমেছে। মূলত বড় ধাক্কাটা এসেছে ফেসবুকের বিজ্ঞাপন থেকে। স্ট্রিট অ্যাকাউন্ট ও ফ্যাক্টশিট পূর্বাভাস দিয়েছিল, দ্বিতীয় প্রান্তিকে ১ হাজার ৩১৬ কোটি মার্কিন ডলার আয় করবে ফেসবুক। কিন্তু সে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে কিছুটা কম আয় হয়েছে ফেসবুকের। তারা আয় করেছে ১ হাজার ৩০৪ কোটি মার্কিন ডলার।-ডেস্ক