-সংগ্রহীত

(দিনাজপুর২৪.কম) বায়ুদূষণ রোধে ২০২৫ সালের মধ্যে দেশের সব ইটভাটা বন্ধ করতে হবে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম। এর মাঝে পরিবেশবান্ধব ইটের উত্তম বিকল্প খুঁজতে হবে বলেও জানান তিনি।

বৃহস্পতিবার (১৯ ডিসেম্বর) সচিবালয়ে বায়ুদূষণরোধে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় মন্ত্রী এই সিদ্ধান্তের কথা জানান।

সভায় পরিবেশ দূষণ রোধে বিভিন্ন বিষয় পর্যবেক্ষণ ও করণীয় নির্ধারণে স্থানীয় সরকার বিভাগের একজন অতিরিক্ত সচিবকে প্রধান করে একটি কমিটি করার নির্দেশ দিয়েছেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রী।

মন্ত্রী বলেন, ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনসহ গাজীপুর ও নারায়ণগঞ্জ সিটির প্রতিনিধিরা থাকবেন এ কমিটিতে। একইসঙ্গে বন ও পরিবেশের যুগ্ম-সচিব, স্বরাষ্ট্রের ও অর্থমন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব, রাজউকের প্রতিনিধি, সড়ক ও মহাসড়ক অধিদপ্তরের প্রতিনিধি, ওয়াসার প্রতিনিধিদের নিয়ে এ কমিটি গঠন করা হবে।

‘নগরীতে ধুলোবালির বর্তমান অবস্থায় আমরা উদ্বিগ্ন। বিশ্বের সব দেশেই কনস্ট্রাকশন কাজ হয় কিন্তু সেখানে বাংলাদেশের মতো এমন অবস্থা থাকে না। সবাইকে সচেতন হতে হবে। ধুলোবালি পরিস্কার করার জন্য আধুনিক গাড়ি কিনতে সিটি করপোরেশনকে প্রয়োজনে সহযোগিতা করবে মন্ত্রণালয়। ২০২৫ সালের পর দেশে কোনো ইটভাটা থাকবে না।’

এসময় মন্ত্রণালয়ের সচিব হেলাল উদ্দিন রাব্বানি, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র জাহাঙ্গির আলম, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রতিনিধি, নারায়ণগঞ্জ সিটির প্রতিনিধি, ওয়াসা, রাজউক, পরিবেশ, সড়ক ও মহাসড়ক বিভাগসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। -ডেস্ক