(দিনাজপুর২৪.কম) বর্তমান সরকারের শিক্ষানীতি মোতাবেক অবিলম্বে শিক্ষকদের স্বতন্ত্র বেতন স্কেল দিতে হবে; বিদ্যালয়ে শ্রেণি পাঠদানের মূল কাজটি সহকারী শিক্ষকরাই করে থাকেন। ৯ মার্চ-২০১৪ ইং তারিখে ঘোষিত বেতন স্কেলে প্রধান শিক্ষদের একধাপ নিচে সহকারী শিক্ষকদের বেতন স্কেল পুনঃনির্ধারন করতে হবে; প্রস্তাবিত জাতীয় পে-স্কেলে প্রধান শিক্ষকদের বেতন স্কেল ১৬ হাজার টাকা নির্ধারন করতে হবে এবং পূর্বের ন্যায় সিলেকশন গ্রেড ও টাইম স্কেল প্রথা বহাল রাখতে হবে; প্রাথমিক শিক্ষার উন্নয়নের স্বার্থে সহকারী শিক্ষক পদকে এন্ট্রি পদ ধরে সহকারী প্রধান শিক্ষকের পদ কার্য্যকর করে যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে পরিচালক পর্যন্ত ১শত ভাগ পদোন্নতি দিতে হবে; দীর্ঘদিন প্রধান শিক্ষকদের পদে পদন্নতি না হওয়ায় অনেক সিনিয়র সহকারী শিক্ষক পদোন্নতি থেকে বঞ্চিত হয়ে অবসরে চলে গিয়াছেন। বিধায় দ্রুত প্রধান শিক্ষক পদে পদোন্নতি দিতে হবে; সদ্য জাতীয়করনকৃত শিক্ষকদের চাকুরীর সরকারিকরনের সকল প্রক্রিয়া দ্রুত সম্পন্ন করতে হবে এবং সকল আর্থিক সুবিধাদি অবিলম্বে প্রদান করতে হবে; যেহেতু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকগণ সপ্তাহে মাত্র একদিন ছুটি ভোগ করেন এবং অন্যান্য সরকারি কর্মচারীর বাৎসরিক মোট ছুটির সাথে প্রাথমিক শিক্ষকদের ছুটির কোনও পার্থক্য নেই। সেহেতু প্রাথমিক শিক্ষকদের নন ভ্যাকেশনাল ডিপার্টমেন্ট এর কর্মচারীরূপে গণ্য করে অভিন্ন পদ্ধতিতে অবসরকালীন ছুটি ও আর্থিখ সুবিধা প্রদান করতে হবে; প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রনালয়ের ২৫/১২/২০০২ তারিখের ৮৬৭ নম্বর ও ৩১/১২/২০০২ তারিখের ৮২৩ নম্বর স্মারক আদেশ বাতিল করে ৫ম শ্রেণির সমাপনী পরীক্ষা ব্যতিত বিদ্যালয়ের অন্যান্য নিয়মিত পরীক্ষাসমূহ পূর্বেল ন্যায় বিদ্যালয় ভিত্তিক পরিচালনার আদেশ জারী করতে হবে; প্রতিটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে জরুরী ভিত্তিতে কম্পিউটার শিক্ষক ও ধর্মীয় শিক্ষক এবং ১জন করণিক নিয়োগ দিতে হবে এবং প্রতি ৩ বছর অন্তর শ্রান্তি বিনোদনের ছুটি ও ভাতা প্রাপ্তি নিশ্চিতকরনের লক্ষ্যে প্রতি বছর একই তারিখে গ্রীস্মের ছুটি নির্ধারন করতে হবে সহ প্রাথমিক শিক্ষকদের উপজেলার অভ্যন্তরিন বদলী কার্য্যক্রম সারা বছর চালু রাখার ব্যাবস্থা করতে হবে- এমন ১১ দফা দাবীতে বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে তালা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মাহবুবুর রহমান এর মাধ্যমে এই স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। পরে শিক্ষক নেতা জি.এম. মোস্তাফিজুর রহমান তিতুর সভাপতিত্বে এক এক সভা উপজেলা পরিষদ চত্বরে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক শেখ ফরিদ উদ্দীন আহম্মেদ। সভায় অন্যান্যের মধ্যে শিক্ষক নেতা রফিকুল ইসলাম, শওকাত হোসেন, নিহাররঞ্জন সঞ্জিব, আশরাফুল ইসলাম, দিদারুল ইসলাম, ফারুক, আব্দুস সাত্তার, ছাবিনা ইয়াছমিন, ইরানী, আমজাদ হোসেন, আবু হায়দার, আব্দুল গফ্ফার ও রেখা কর্মকার প্রমুখ। সভায়, বক্তারা উপরিউক্ত ১১ দফা দাবী অতিসত্বর মেনে নেবার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিকট আহবান জানান এবংআগামী ১৫ জুন সারা দেশের ৬৪ জেলার ন্যায় সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এর মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট একই দাবীতে স্মারকলিপি প্রদান করার জন্য সকল শিক্ষকদের নিকট আহবান জানানো হয়। –(বি. এম. জুলফিকার রায়হান, তালা, সাতক্ষীরা)