(দিনাজপুর২৪.কম)মোটরসাইকেল আরোহীর হেলমেট না থাকলে তেল বিক্রি না করতে কঠোর নির্দেশ দিয়েছে পুলিশ। আর সেই নির্দেশ মানতে গিয়েই পাম্পে তেল বিক্রি করা বন্ধ হয়ে যায়! অভিযোগ উঠেছে মোটরসাইকেল নিয়ে একজন আওয়ামী লীগ নেতা তেল আনতে যায় পাম্পে। হেলমেট না থাকায় তার কাছে তেল বিক্রি করতে রাজি হয়নি পাম্পের বিক্রয়কর্মী। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে ওই নেতা পাম্পের তেল বিক্রি বন্ধ করে দিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজশাহীর পুঠিয়া ফিলিং স্টেশনে এ ঘটনা ঘটে।

তেল পাম্প ম্যানেজার অলক কুমার সরকার বলেন, বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পালোপাড়া হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক আব্দুল মালেক মোটরসাইকেলে তেল নিতে আসেন। সে সময় তার কাছে কোনো হেলমেট ছিল না। তাই পাম্পের একজন বিক্রয়কর্মী তেল দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে চলে যান।

তিনি বলেন, কিছুক্ষণ পর আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল মালেক আবার এসে নিজে দাঁড়িয়ে থেকে এখানকার কর্মচারীদের দিয়ে পাম্পের সামনে দড়ি বেঁধে অবরোধ করে চলে যান। যাওয়ার আগে তিনি আমাদের হুমকি দিয়ে যান কারো কাছে তেল বিক্রি করলে পাম্প জ্বালিয়ে দেয়া হবে। এরপর থেকে পাম্পে তেল বিক্রি বন্ধ রাখা হয়েছে। বিষয়টি পাম্প মালিক, থানা ও উপজেলা প্রশাসনকে অবহিত করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি পুলিশ প্রশাসন হেলমেটবিহীন কোনো মোটরসাইকেলে তেল দেয়ায় নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। এ বিষয়ে পাম্পের সামনে একটি ব্যানারও ঝুলানো আছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পালোপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুল মালেকের মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

পুঠিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রাকিবুল হাসান বলেন, হেলমেটবিহীন মোটরসাইকেলে তেল না দেয়ার বিষয় নিয়ে উভয়পক্ষের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পাম্পে তেল দেয়া বন্ধ রয়েছে এটা আমি শুনেছি। সন্ধ্যার পর উভয়পক্ষের লোকজন নিয়ে বিষয়টি সুরাহা করা হবে। -ডেস্ক