(দিনাজপুর২৪.কম) ভারতে কাঁচা পণ্যের মূল্য নির্ধারণ সংস্থা ন্যাপিড বাংলাদেশে পেঁয়াজ রপ্তানিতে রপ্তানি মূল্য দ্বিগুণ করায় হিলি স্থলবন্দরে বেড়েছে পেঁয়াজের দাম। প্রকারভেদে কেজি প্রতি ২০ থেকে ২৫ টাকা বেড়ে বন্দরে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৬০ থেকে ৬৫ টাকা। যে পেঁয়াজ বৃহস্পতিবার বন্দরে বিক্রি হয়েছে ৩৮ থেকে ৪২ টাকা কেজি দরে।

গত শুক্রবার ভারতে মূল্য নির্ধারণ সংস্থা ন্যাপিড প্রতি মেট্রিক টন পেঁয়াজ রপ্তানিতে ২৫০ থেকে ৩০০ মার্কিন ডলার থেকে বাড়িয়ে ৮৫২ মার্কিন ডলার নির্ধারণ করে দেয়। হঠাৎ করে রপ্তানি মূল্য বৃদ্ধি করায় পূর্বের এলসি নিয়ে বিপাকে পড়তে হয় পেঁয়াজ আমদানিকারকদের। এর প্রভাবে বাজারে পেঁয়াজের দাম অনেকটাই বৃদ্ধি পেয়েছে।

হিলি স্থলবন্দরের আমদানিকারকরা জানান, হঠাৎ করে শুক্রবার ভারত পেঁয়াজ রপ্তানিতে মূল্য নির্ধারণ করায় আমাদের বিপাকে পড়তে হয়েছে। শনিবারে ব্যাংক বন্ধ থাকায় পূর্বের পেঁয়াজের কম মূল্যের এলসিগুলো অ্যামেন্ডমেন্ট করতে না পারায় শনিবার সকাল থেকে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ থাকে। তবে বিকেলের দিকে নির্ধারিত ৮শ ৫২ ডলারে ভারতীয় ৬ ট্রাকে ১শ ৩৫ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি হয়। ভারতের নির্ধারিত মূল্যে আমদানি করা পেঁয়াজগুলো শনিবার বিকেলে বন্দরের প্রবেশ করার পর সেই পেঁয়াজগুলো আমদানিকারকরা দাম চাচ্ছেন ৬০ থেকে ৬৫ টাকা কেজি দরে। এত পরিমাণ দাম বাড়ায় পেঁয়াজের কিনতে এসে বিপাকে পড়েছেন বন্দরের পাইকাররা। -ডেস্ক