(দিনাজপুর২৪.কম) হাটহাজারীতে ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত গড়দুয়ারা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য এমরান চৌধুরী (৪৫) মারা গেছেন। সোমবার রাত দুইটার দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

এর আগে সোমবার দুপুরে উপজেলার ইছাপুর বাজারে মেখল ইউনিয়নের চাঁদ গাজী চৌধুরী বাড়ির জামশেদ (৩৩) তাকে ছুরিকাঘাত করে। এমরান চৌধুরী ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য এবং ওই এলাকার কান্দর আলি চৌধুরী বাড়ির মো. ওমর চৌধুরীর পুত্র।

সূত্রে জানা যায়, সোমবার দুপুরে ইউপি সদস্য এমরান ইছাপুর বাজারে কেনাকাটা করতে যান। এ সময় জমি নিয়ে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে জামশেদের সাথে তার কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে জামশেদ পার্শ্ববর্তী মুরগীর দোকান থেকে ছুরি নিয়ে এমরানকে আঘাত করে পালিয়ে যায়। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে প্রথমে হাটহাজারীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ও পরে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত দুইটার দিকে তার মৃত্যু হয়।

এমরানের স্ত্রী ডেইজি- বলেন, আমার স্বামীর বাড়িই জামশেদের শ্বশুর বাড়ি। তার শ্বশুর জাকারিয়ার সাথে পার্শ্ববর্তী এক নারীর জমি নিয়ে বিরোধ চলছিল। ইউপি সদস্য হিসেবে আমার স্বামী শালিস বৈঠকে কথা বলায় জামশেদ ক্ষীপ্ত হয়ে অতর্কিত হামলা করে ছুরিকাঘাত করেছে। আমি এ হত্যাকাণ্ডের দৃষ্টান্তমূূূলক বিচার চাই।

হাটহাজারী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) বেলাল উদ্দিন জাহাঙ্গীর বলেন, ইউপি সদস্য এমরান ছুরিকাঘাতে খুন হয়েছেন। জড়িতদের আটকে অভিযান অব্যাহত আছে।-ডেস্ক