মোঃ আফজাল হোসেন (দিনাজপুর২৪.কম)  দিনাজপুরের হাকিমপুর চাল, পেঁয়াজ, কাঁচা মরিচসহ তরিতরকারীর দান লাগামহীন ভাবে বেড়েই চলেছে। ফলে সাধারন ক্রেতারা বিপাকে পড়েছে। বেশি বিড়ম্বনায় পড়েছেন মধ্যবিত্ত আয়ের মানুষেরা। চাহিদামত বাজার করতে পারছেনা তারা। বাজার ঘুরে দেখা গেছে, ভারত থেকে আমদানি করা পেঁয়াজ প্রতি কেজি ৬০ টাকা, কাঁচা মরিচ ৮০ থেকে ১শ টাকা। প্রতিকেজি চাল প্রকার ভেদে ৪০ থেকে ৫০ টাকা। একই ভাবে প্রতিকেজি আটা ৩০ টাকা, শিম প্রতিকেজি ৪০ থেকে ৬০ টাকা, বরবটি প্রতিকেজি ৪০ টাকা, চিচিঙ্গা ৪০ টাকা, নুতন আলু প্রতিকেজি ৫০ থেকে ৬০ টাকা, পুরাতন আলু প্রতিকেজি ২০ টাকা, শুকনো মরিচ প্রতিকেজি ৮০ টাকা, রসুন প্রতিকেজি ৮০ টাকা। তবে মাছ ও মাংসের বাজার মোটামোটি স্থির হয়েছে। প্রতিকেজি গরুর মাংস ৪শ ৫০ টাকা, খাসির মাংস ৬শ থেকে ৬শ ৫০ টাকা, ব্রয়লার মুরগী ১শ ২০ টাকা, প্রতিকেজি কাতলা মাছ ২শ থেকে ২শ ৫০ টাকা, রুই প্রতিকেজি ২শ টাকা, পাঙ্গাস মাছ ১শ থেকে ১শ ২০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। খুচরা বিক্রেতারা বলছেন, বাজারে আমদানি কম থাকায় পেঁয়াজ ও কাঁচা মরিচের দাম তুলনামূলক বেশি। আমদানি স্বাভাবিক হলেই দাম সহনীয় পর্যায়ে চলে আসবে।