-কাউখালীর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা খালেদা খাতুন রেখা

(দিনাজপুর২৪.কম) করোনায় আক্রান্ত হয়ে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান এক নারী। ঘণ্টার পর ঘণ্টা বাড়িতে পড়েছিল লাশ। করোনার ভয়ে স্বজনরা তাকে ছুঁয়েও দেখিনি। কাছে আসেনি প্রতিবেশীরাও। অবশেষে খবর পেয়ে মৃত ওই নারীকে দাফনের পূর্বে গোসল করাতে এগিয়ে আসেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা খালেদা খাতুন রেখা। স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করে অপর দুই স্বেচ্ছাসেবীর সহযোগিতায় করোনায় মৃত নারীকে তিনি গোসল করান।

গতকাল শুক্রবার রাত ১০টার দিকে পিরোজপুরের কাউখালীর উজিয়ালখান গ্রামে এই ঘটনাট ঘটে। উজিয়ালখান গ্রামের এক নারীর মৃত্যুর পর তাকে দাফনের পূর্ব ইসলামি নিয়ম অনুযায়ী তাকে গোসল করিয়েছেন কাউখালীর ইউএনও খালেদা খাতুন রেখা। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয়দের প্রশংসায় ভাসছেন তিনি।

মৃত ব্যক্তিকে গোসল করানোর অভিজ্ঞতা আগে কখনো ছিল না ইউএনও রেখার। তবে স্বজন ও প্রতিবেশীরা যখন করোনায় মৃত নারীর কাছে আসতে ভয় পাচ্ছিলেন তখন খবর পেয়ে ছুটে আসেন তিনি। পরে সেচ্ছাসেবী মাহাফুজা মিলি ও শামীমা আক্তারের সহযোগিতায় লাশের গোসল ও কাফনের কাপড় পরান। গোসল করানোর আগে সুরক্ষাসামগ্রী (গাউন, হ্যান্ড গ্লাভস, মাস্ক, ক্যাপ ও বুটজুতা) পরেন তারা। পরে রাত ১২টার দিকে উজিয়ালখান গ্রামের পারিবারিক কবরস্থানে জানাজা শেষে দাফন করা হয় ওই নারীকে।

ইউএনও’র করোনায় মৃত নারীর গোসল করানোর খবর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে তা ব্যাপক সাড়া জাগায়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারকারীরা ইউএনও’র প্রশংসা করে তার সাহসী উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন। -ডেস্ক রিপোর্ট