সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। পুরোনো ছবি

(দিনাজপুর২৪.কম) পশ্চিমবঙ্গের প্রখ্যাত অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় আর নেই। আজ রোববার দুপুর ১২টা ১৫ মিনিটে কলকাতার বেলভিউ হাসপাতালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

এর আগে, হাসপাতালে লাইফ সাপোর্ট ছিলেন বর্ষীয়ান অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। তার শারীরিক অবস্থা অত্যন্ত সংকটজনক ছিল বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। লাইফ সাপোর্টেও আর সাড়া দিচ্ছিলেন না কিংবদন্তি এই অভিনেতা।

গতকাল হাসপাতালটির চিকিৎসক অরিন্দম কর জানিয়েছেন, তারা সাধ্যমতো চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। তার অবস্থা আরও সংকটজনক হয়েছে। কোনো ওষুধেও কাজ হচ্ছে না। সৌমিত্রকে নিয়ে এখন অলৌকিকেই ভরসা করতে হচ্ছে তাদের।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, শনিবার রাতের তুলনায় রোববার সকালে আরও খারাপের দিকে গেছে এই অভিনেতার শারীরিক অবস্থা। তাদের ভাষ্য, পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে। স্বনামধন্য এই অভিনেতার শরীরের যা অবস্থা তাতে পরিস্থিতি মাল্টি-অর্গান ফেলিওর দিকে যাচ্ছে। বিভিন্ন অঙ্গ ধাপে ধাপেও কাজ করা বন্ধ করে দিচ্ছে।

তাই গতকাল সন্ধ্যা পরিবারের লোকদের হাসপাতালে ডেকে সৌমিত্রের শারীরিক অবস্থার কথা জানানো হয়।

এদিকে, তিন দিন আগে শ্বাসনালীতে অস্ত্রোপচার হয় ৮৫ বছরের এই অভিনেতার। চিকিৎসকরা তখন জানিয়েছিলেন, তার শরীরের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ ঠিকঠাকই কাজ করছে। তবে তিনি খুব দুর্বল। এরপর সৌমিত্রের শরীরে প্লাজমা থেরাপিও করা হয়।

এর আগে, গত ৬ অক্টোবর করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে বেলভিউ হাসপাতালে ভর্তি হন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। এরপর ১৪ অক্টোবর অভিনেতার কোভিড-১৯ রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। কিন্তু কোভিড এনসেফেলোপ্যাথির কারণে তার স্নায়ুতে প্রভাব পড়ে। এরপর থেকেই প্রায় অচেতন তিনি। অবশ্য মধ্যে কয়েকদিন চোখ মেলে সাড়া দিচ্ছিলেন। কিন্তু হঠাৎই অবস্থা খারাপের দিকে চলে যায়। -ডেস্ক