(দিনাজপুর২৪.কম) ভারতের উত্তরপ্রদেশে সুইপার পদে চাকরির জন্য ৫ লাখেরও বেশি স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারী আবেদন করেছেন। চতুর্থ শ্রেণির এ পদে ৩ হাজার ২৭৫ জনকে নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে উত্তর প্রদেশ রাজ্যের কানপুর পৌর করপোরেশন কর্তৃপক্ষ। বিজ্ঞপ্তিতে শিক্ষাগত যোগ্যতা উল্লেখ না থাকলেও এখন পর্যন্ত ৫ লাখেরও বেশি অনার্স ও মাস্টার্সধারী আবেদন করায় ব্যাপক বিস্ময় তৈরি করেছে। একইসঙ্গে ভারতে বেকারত্বের বিষয়টিও উঠে এসেছে সামনে।

ইন্ডিয়া টুডের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ৫ লাখ স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারী কানপুর পৌর করপোরেশনের সুইপারের (সাফাই কর্মচারী) ৩ হাজার ২৭৫টি পদের জন্য আবেদন করেছেন। পৌর কর্মকর্তারা বলছেন, আবেদনকারীর সংখ্যা সাত লাখ ছাড়িয়ে যেতে পারে।

এর আগে, পৌর কর্তৃপক্ষ কোনো ধরনের শিক্ষাগত যোগ্যতা ছাড়াই চুক্তিভিত্তিক সুইপার নিয়াগে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। ৩ হাজার ২৭৫ পদের মধ্যে দেড় হাজার জনকে সাধারণ এবং অবশিষ্ট পদে কোটাভিত্তিক নিয়োগ দেওয়া হবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

তবে ভারতে এ ধরনের ঘটনা এই প্রথম নয়। এর আগে গত জানুয়ারিতে উত্তরপ্রদেশের আমরোচা জেলায় সুইপার পদে ১১৪ জনকে নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। সে সময়ও অন্তত ১৫ হাজার স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারী আবেদন করেন।

সম্প্রতি পাঞ্জাবে পুলিশ কনস্টেবলের ৭ হাজার ৪১৬ পদের জন্য নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। এতেও ৫ লাখ ৮৭ হাজার স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারী আবেদন করেন। -ডেস্ক