(দিনাজপুর২৪.কম) সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তাকে (আইও) তলব করেছেন হাইকোর্ট। আজ রবিবার বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমান সমন্বয়ে একটি হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আগামী ৬ নভেম্বর সিডিসহ মামলার আইও র‌্যাবের এএসপি মহিউদ্দিনকে হাজির হতে বলা হয়েছে।

সাগর-রুনি হত্যার ঘটনায় সন্দেহভাজন হিসেবে অভিযোগ ওঠা তানভীর রহমানের নামের এক ব্যক্তির মামলা বাতিল চেয়ে করা আবেদনের শুনানিতে এ আদেশ দেওয়া হয়। আদালতে তানভীরের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী ফাওজিয়া করিম ফিরোজ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি এটর্নি জেনারেল মো. সারওয়ার হোসেন।

ডেপুটি এটর্নি জেনারেল বলেন, দীর্ঘ ৮ বছর মামলার তদন্ত শেষ না হওয়ার বিষয়টি আদালতের নজরে এসেছে। তানভীরের ক্ষেত্রে মামলাটির কার্যক্রম কেন বাতিল করা হবে না এ মর্মে রুল দিয়ে মামলার তদন্ত কর্মকর্তাকে তলব করেছেন আদালত।

উল্লেখ্য, ২০১২ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি নিজ বাসায় খুন হন সাগর-রুনি। এ ঘটনায় রুনীর ভাই নওশের আলী রোমান বাদী হয়ে শেরেবাংলা নগর থানায় মামলা করেন। মামলার তদন্তের দায়িত্ব পড়ে গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) ওপর। পরে হাইকোর্টের নির্দেশে মামলাটির তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয় র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নকে (র‌্যাব)।

এরপর ওই বছরের ১ অক্টোবর সাগর-রুনীর ‘কথিত’ পারিবারিক বন্ধু ও স্কলাসটিকা স্কুলের ডেপুটি ম্যানেজার তানভীর রহমানকে সন্দেহভাজন হিসেবে আটক করা হয় এবং ওইবছরের ১০ অক্টোবর তাকে ৭ দিনের রিমান্ডে নেয় পুলিশ। হাইকোর্ট থেকে ২০১৪ সালের ২ ডিসেম্বর তানভীর রহমানকে জামিন দেন। এরইমধ্যে আট বছর পার হয়েছে। কিন্তু মামলার তদন্ত সম্পন্ন হয়নি। আগামী ১৪ নভেম্বর নিম্ন আদালতে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য দিন ধার্য রয়েছে। এরইমধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ৬৮ বার সময় নিয়েছে তদন্ত কর্মকর্তা। -ডেস্ক