(দিনাজপুর২৪.কম) ভালো নেই ‘ইত্যাদি’খ্যাত সংগীতশিল্পী আকবর। বেশ অসুস্থ তিনি। ঔষধ কেনার টাকা পর্যন্ত নেই। নেই ঘরে খাবার। স্ত্রী ও একমাত্র কন্যা সন্তান নিয়ে মাঝেমধ্যে উপোষও থাকতে হচ্ছে এ শিল্পীকে। আজ একটি ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে তার এই অবস্থার কথা জানিয়েছেন তিনি। তিনি লিখেন, আমি আকবর অজোপাড়াগাঁয় বড় হয়েছি। ছোটবেলা থেকে গান ভালোবাসি।

গান ছাড়া আমার জীবনে আর কিছুই ছিল না।হঠাৎ কালবৈশাখী ঝড়ের মতো জীবনটা বদলে গেল। খুব বড় একটা প্লাটফর্ম পেয়েছিলাম।তারপর জীবনের গতিও পাল্টে গেলো। কিছু মানুষের ভালোবাসায় গানটাই জীবনের একমাত্র সঙ্গী হলো। কোনভাবে জীবন কেটে যাচ্ছিল। কিন্তু গত বছরের শুরুতে নানা রোগ শরীরে বাসা বাঁধলো। জীবনের গতিও থেমে গেলো। আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমার পাশে এসে দাঁড়িয়েছিলেন। যে সঞ্চয়পত্র আমাকে দিয়ছিলেন সেটা দিয়ে চিকিৎসা হয়ে যায়।আর মাঝে মাঝে শো করে সংসারটা অনেক কষ্টে চলে যাচ্ছিল। তারপর এই করোনা নামক মহামারী এসে আমাদের পুরো জীবনটাই এলোমেলো করে দিল। গত দুই মাস ধরে আমাদের সমস্ত কাজই বন্ধ হয়ে গেছে। ব‍্যাংক বন্ধ থাকায় সঞ্চয়ের টাকাটাও উঠাতে পারছি না। খুবই খারাপ পরিস্থিতির মধ‍্যে জীবনটা অতিবাহিত করছি। আমার চিকিৎসা পুরো বন্ধ হয়ে গেছে।শরীরটাও আবার খারাপ হয়ে যাচ্ছে। সংসারই চালাতে পারছি না, ঔষধ কিনবো কিভাবে? খুব কষ্ট লাগে এটা ভেবে যে আজ এই বিপদের দিনে আমার পাশে কেউ নাই। সবাই স্বার্থপরের মতো আমার কাছ থেকে সরে গেছে। কারণ আজ তাদের জীবনে আমার প্রয়োজন শেষ। আমি অসুস্থ হয়ে গেছি। আমার কাছে আগের মতো টাকাও নাই। তাই আমার দরকারও নাই। কেউ আমাকে ফোন দিয়ে খোঁজটা পর্যন্ত নেয় না। আজ আমি কতটা মূল‍্যহীন হয়ে গেছি সবার কাছে।-ডেস্ক