(দিনাজপুর২৪.কম) বিচারপতিদের অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতে দিয়ে করা সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলে হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে আপিলের শুনানি নবম দিনের মতো শুরু হয়েছে। আজ সোমবার প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন সাত বিচারপতির বেঞ্চে আদালতের বন্ধুর (অ্যামিকাস কিউরি) এম আই ফারুকী অসমাপ্ত মতামত দেওয়া শুরু করেছেন।

এর আগে কয়েক দিনে অ্যামিকাস কিউরির মতামত দিয়েছেন জ্যেষ্ঠতম আইনজীবী টি এইচ খানের পক্ষে তাঁর ছেলে আইনজীবী আফজাল এইচ খান, ব্যারিস্টার রোকনউদ্দিন মাহমুদ ও ব্যারিস্টার এম আমীর-উল ইসলাম।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি নিয়োগ পাওয়া ১২ জন অ্যামিকাস কিউরির অন্য আটজন হলেন—জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ড. কামাল হোসেন, আবদুল ওয়াদুদ ভূঁইয়া, এ এফ হাসান আরিফ, আজমালুল হোসেন কিউসি, রফিক-উল হক, এ জে মোহাম্মদ আলী, ফিদা এম কামাল ও শফিক আহমেদ।

গত ৮ থেকে ২৪ মে পর্যন্ত আপিল শুনানির ছয় কার্যদিবসে যুক্তিতর্ক (আর্গুমেন্ট) উপস্থাপন করেন আপিল আবেদনের পক্ষে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল মুরাদ রেজা এবং রিট আবেদনের পক্ষে মনজিল মোরসেদ। শুরুতে হাইকোর্টের দেওয়া রায় পড়ে শোনান মুরাদ রেজা।

২০১৪ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর বিচারপতি অপসারণের ক্ষমতা সংসদের কাছে ফিরিয়ে নিতে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী আনা হয়। -ডেস্ক