স্টাফ রিপোর্টার (দিনাজপুর২৪.কম) ১১ নভেম্বর রোববার রাজবাড়ী সংলগ্ন কাটাপাড়া আদর্শ যুব ক্লাব আয়োজিত গর্ভেশ্বরী শ্মশানঘাট কালি মন্দির সংলগ্ন শ্যামা পূজা উপলক্ষে আরতি প্রতিযোগিতা-২০১৮ শেষে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।  গর্ভেশ্বরী শ্মশান কমিটির সভাপতি কাঞ্চন কুমার দে’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার সভাপতি ও দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি স্বরূপ বকসী বাচ্চু। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক উত্তম কুমার রায়, সাংগঠনিক সম্পাদক বিভাষ বিশ্বাস। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন নিমতলা মন্দির কমিটির সহ-সভাপতি সুবীর চক্রবর্তী, কমল কুমার দত্ত, শুভ ঘোষ, শ্রী রাজু দাস, গৌরাঙ্গ রায়, প্রশান্ত রায় চৌধুরী জুন। বিচারক হিসেবে বক্তব্য রাখেন প্রদীপ ঘোষ, বিনত সরকার, দূর্গা দাস তেঁতুল। স্বাগত বক্তব্য রাখেন কমিটির সাধারণ সম্পাদক প্রফুল্ল কুমার রায় জয়। প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখতে গিয়ে স্বরূপ বকসী বাচ্চু বলেন, মানুষ শ্মশানে আসতে ভয় করে। মৃত্যু ভয় না পেয়ে মনে করতে হবে শ্মশান প্রতিটি মানুষের শেষ ঠিকানা। সনাতন ধর্মের প্রতিটি অনুষ্ঠানে আমাদের সন্তানদের সম্পৃক্ত করতে পারলে তাদের মধ্যে ধর্মীয় চেতনা বৃদ্ধি পাবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং আমাদের প্রাণপ্রীয় মাটি ও মানুষের নেতা হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি সম্প্রীতির বন্ধনে যাতে সকলে নিজ নিজ ধর্ম পালন করতে পারেন তার পূর্ণ স্বাধীনতার বার্তা প্রচার করে আসছে। আমরা বিশ্বাস করি ধর্ম যার যার উৎসব সবার। আমাদের প্রতিটি উৎসবে সকল সম্প্রদায়ের মানুষ অংশগ্রহণ করে ্বলেই ধর্মীয় অনুষ্ঠানগুলো সম্প্রতির উৎসব হয়ে উঠে। আসুন আমরা মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সকলে মিলে এদেশটাকে সাম্প্রদায়ীক সম্প্রীতির দেশ হিসেবে গড়ে তুলি।