(দিনাজপুর২৪.কম) বগুড়া শেরপুরে তুহিন ও তার সন্ত্রাসী বাহিনীকে চাঁদা না দেওয়ায় মারপিট ও জীবননাশের হুমকি দেওয়াই প্রশাসনের নিকট জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করেছে ভুক্তভোগী উত্তর সাহাপাড়া গ্রামের মৃত আবদুল বারিকের ছেলে নিলু আহমেদ। গতকাল শনিবার ২৮ ডিসেম্বর বিকাল ৪টায় বাসস্ট্যান্ড শেরপুর প্রেসক্লাব নিজ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্যে নিলু আহমেদ বলেন, আমি ও আমার স্ত্রী মমতাজ বেগম নতুন ছাদপাড়া পাকা বাড়ি নির্মাণ করছিলাম।

এ সময় ধুনট মোড় তালতলা এলাকার মকবুল হোসেনের ছেলে মো. তুহিন এর নেতৃত্বে খামারকান্দি ইউনিয়নের কাফুরা গ্রামের তোফাজ্জল এর ছেলে মেহেদী, কোটপাড়া এলাকার দ্বারা খানের ছেলে রকি খান, খানপুর ইউনিয়নের রনবীর বালা এলাকার  সৌরভ, পৌরসভার সাহাপাড়া এলাকার মৃত মমতাজ এর ছেলে মো. কালা গত ২০ ডিসেম্বর আমার বাসায় এসে আমাদের নিকটে ৫০ হাজার টাকা দাবি করে।আমি উক্ত টাকা না দেওয়ায় তারা গত ২৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত সময় দিয়ে যায়। তাদের সময় মত টাকা না দেওয়ায় তুহিনের নেতৃত্বে তারা আবার আমার বাড়িতে গত ২৬ ডিসেম্বর হামলা চালিয়ে ভাংচুরসহ আমাকে আমার স্ত্রী মমতা বেগম ও কন্যা রুমিকে বেধড়ক মারপিট করে এবং জীবননাশের হুমকি দিয়ে চলে যায়।সন্ত্রাসীরা প্রভাবশালী হওয়ায় আমরা জীবনের নিরাপত্তায় ভুগছি এবং পরিবারসহ বাড়িঘর ছাড়িয়া আত্মগোপন করিয়া ঘুরিতেছি। প্রিয় সাংবাদিক ভাইয়েরা আপনাদের মাধ্যমে আমরা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি যেন আমাদের জীবনের নিরাপত্তা দিয়ে সুন্দরভাবে বেঁেচ থাকার অধিকার নিশ্চিত হয়। -ডেস্ক