ec-dinajpur24(দিনাজপুর২৪.কম) শুরুতেই নতুন নির্বাচন কমিশনের ওপর মানুষ যাতে আস্থা রাখে সেরকম ব্যক্তিদের নাম প্রস্তাবের পরামর্শ দিয়েছেন বিশিষ্ট নাগরিকেরা। আজ সন্ধ্যায় সুপ্রিম কোর্টের জাজেজ লাউঞ্জে ইসি গঠনের লক্ষ্যে গঠিত সার্চ কমিটির সঙ্গে বৈঠকে তারা এমন পরামর্শ দিয়েছেন। বিশিষ্টজনরা বলেছেন, অতীতে কোন রাজনৈতিক দল বা পেশাজীবী সংগঠনের সঙ্গে জড়িত ছিলেন এমন কারও নাম যেন প্রস্তাব না করা হয়। এছাড়া নির্বাচন কমিশনে দায়িত্ব পালনে যোগ্য নন এমন কারও নাম যেন প্রস্তাব না করা হয়। সন্ধ্যায় বৈঠক শেষে বিশিষ্ট আইনজীবী সুলতানা কামাল, সাবেক সিইসি এটিএম শামসুল হুদা, ইউজিসি’র সাবেক চেয়ারম্যান এ কে আজাদ চৌধুরী গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন। ড. এটিএম শামসুল হুদা বলেন, শুরুতে সবার কাছে গ্রহণযোগ্য হয় এমন ইসি গঠনের পরামর্শ দিয়েছি। এছাড়া এমন লোকের নাম প্রস্তাব করতে পরামর্শ দিয়েছি যারা নির্বাচন কমিশনে কাজ করার যোগ্য। একে আজাদ চৌধুরী বলেন, সবারকাছে গ্রহণযোগ্য, দেশপ্রেম আছে, ত্যাগ স্বীকারে প্রস্তুত এমন ব্যক্তিদের তালিকা দিতে সার্চ কমিটিকে পরামর্শ দিয়েছি। এডভোকেট সুলতানা কামাল বলেন, নির্বাচন ভন্ডুল নির্বাচন কমিশন করতে পারে না। এটি করে রাজনৈতিক দল। এজন্য সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য রাজনৈতিক দল এবং ভোটার ও সাধারণ জনগণের মানসিকতা বদলাতে হবে।
এর আগে আপিল বিভাগের বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে সার্চ কমিটির সদস্যরা বিকাল পৌনে ৪টার দিকে জাজেস লাউঞ্জে পৌঁছান। বৈঠকের আমন্ত্রণ পাওয়া ১২ বিশিষ্ট নাগরিকদের মধ্যে ছিলেন, হাই কোর্ট বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি আব্দুর রশিদ, বিশ্ববিদ্যালয়ের এমিরেটাস অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, সাবেক ইউজিসি চেয়ারম্যান অধ্যাপক এ কে আজাদ চৌধুরী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য এসএমএ ফায়েজ, অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল, সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার এটিএম শামসুল হুদা সাবেক নির্বাচন কমিশনার মোহাম্মদ ছহুল হোসাইন, এম সাখাওয়াত হোসেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রশাসন বিভাগের সাবেক শিক্ষক তোফায়েল আহমদ, সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক আবুল কাশেম ফজলুল হক ও সাবেক পুলিশ মহা পরিদর্শক নুরুল হুদা।
শনিবার এই জাজেস লাউঞ্জেই সার্চ কমিটির প্রথম বৈঠক হয়। সেখানেই বিশিষ্ট নাগরিকদের সঙ্গে আলোচনার সময় ও তালিকা চূড়ান্ত করা হয়। সেইসঙ্গে প্রেসিডেন্টের সঙ্গে সংলাপে অংশ নেওয়া ৩১টি রাজনৈতিক দলের কাছে নির্বাচন কমিশনের জন্য পাঁচটি করে নামের প্রস্তাব চাওয়ার সিদ্ধান্ত হয় ওই বৈঠকে। মঙ্গলবার বেলা ১১টার মধ্যে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিবের (প্রশাসন ও বিধি) কাছে এই নাম জমা দিতে বলা হয়েছে দলগুলোকে। -ডেস্ক