গ্রাম ডাক্তার সোলায়মান শাহ ।

(দিনাজপুর২৪.কম) গোপালগঞ্জে শিশু শিক্ষার্থীকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে গণধোলাই দিয়ে সোলায়মান শাহ (৫০) নামে এক গ্রাম ডাক্তারকে থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। শনিবার দুপুরে কোটালীপাড়া উপজেলার কুঞ্জবন গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযুক্ত সোলায়মান শাহ চাঁদপুর জেলার মতলব উপজেলা সদরের হয়রত আলী শাহর ছেলে। তিনি বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার কলাবাড়িয়া গ্রামে স্থায়ীভাবে বসবাস করেন এবং কুঞ্জবন গ্রামে ঔষধের দোকান খুলে স্থানীয়দের চিকিৎসা করে আসছিলেন। শিশুটি উত্তরপাড়া মাদ্রাসা সংলগ্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী।

ওই শিশুর মা জানান, মেয়ের শরীরে এলার্জি দেখা দেয়। শনিবার দুপুরে তাকে নিয়ে বাড়ির পাশে ওই ডাক্তারের চেম্বারে নিয়ে যাই। ডাক্তার ব্যস্ত থাকায় তিনি মেয়েকে সেখানে রেখে বাড়ির উঠানে শুকাতে দেয়া ধান দেখভাল করতে থাকেন। এ সুযোগে ওই গ্রাম ডাক্তার তার মেয়েকে ঘরে নিয়ে বিস্কুট খেতে দিয়ে ধর্ষণ চেষ্টা করে। মেয়ে ডাক্তারের ঘর থেকে বেড়িয়ে এসেই তাকে সব খুলে বলে। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় বিক্ষুব্ধরা তাকে ধরে উত্তম-মাধ্যম দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। ওই মেয়ের মা জানান, এ ব্যাপারে তিনি মামলা করবেন।

কোটালীপাড়া থানার ওসি শেখ লুৎফর রহমান বলেন, শিশু শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে স্থানীয়রা গ্রাম ডাক্তারকে আটক করে আমাদের খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছালে স্থানীয়রা ওই চিকিৎসককে আমাদের কাছে সোপর্দ করে। এ ব্যাপারে অভিযোগ পেলেই মামলা নেয়া হবে। আজ রবিবার ওই গ্রাম ডাক্তারকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হবে। -ডেস্ক