প্রাচ্য পলাশ (দিনাজপুর২৪.কম) শিল্প-সংস্কৃতি বিশ্বের সব জাতিসত্ত্বার নিজস্ব পরিচয়কে তুলে ধরার প্রধান মাধ্যম। আর একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধ ও বিজয় অর্জন আমাদের শ্রেষ্ঠ অর্জন। তাই মুক্তিযোদ্ধা, শিল্পী, কবি-সাহিত্যিক ও সাংবাদিকদের বাঙালি জাতিসত্ত্বা ভিত্তিক পরিচয়ের কা-ারি বলা যেতে পারে। আর এই জাতির কা-ারিদের পাশে দাঁড়িয়েছে- ল্যাবওয়ান মেডিকেল সার্ভিসেস এ- হাসপাতাল। তারা বিশেষ ছাড়ে জাতির কা-ারিদের চিকিৎসা সেবা প্রদান করছে।

চিকিৎসা সেবার যাবতীয় আয়োজন, সেবাগ্রহন পদ্ধতি ও শিল্পীদের জন্য বিশেষ ছাড়ে চিকিৎসা সেবা প্রদানের বিষয়বস্তু নিয়ে তরুণ চলচ্চিত্র নির্মাতা প্রাচ্য পলাশ ‘ল্যাব ওয়ান মেডিকেল সার্ভিসেস অ্যা- হাসপাতাল’ নামে সম্প্রতি একটি প্রামাণ্য চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছেন। বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস ২০২০ উপলক্ষে ইউটিউব ভিত্তিক স্মার্ট চ্যানেল ‘প্রাকৃত টিভি’ তে আগামী ০৩ এপ্রিল শুক্রবার সকাল সোয়া ১০টায় এ প্রামাণ্য চলচ্চিত্রটির অনলাইন প্রিমিয়ার ও শুভমুক্তি অনুষ্ঠিত হবে।

প্রামাণ্য চলচ্চিত্রটির নির্মাতা প্রাচ্য পলাশ জানান, সমাজের শীর্ষে শিল্পীদের অবস্থান হওয়া উচিত হলেও আমাদের দেশে শিল্পীদের যথাযথ সম্মান ও মর্যাদা প্রতিষ্ঠিত হয়নি। প্রতি বছরই চিকিৎসার জন্য শিল্পীদের হাত পেতে ভিক্ষা চায়তে হয়। তাই এ ব্যাপারে ল্যাব ওয়ান মেডিকেলের দেখানো পথ ধরে বাংলাদেশের প্রতিটি হাসপাতাল এগিয়ে এলে সভ্যতার মানদ-ে এ জাতি আরো একধাপ অগ্রসর হতে পারবে।

বারো মিনিট দৈর্ঘ্যরে এ প্রামাণ্য চলচ্চিত্রটিতে সুচিকিৎসা প্রাপ্তি নিশ্চিত করার মধ্যদিয়ে প্রতিদিন কয়েকশ’ মানুষের মুখে হাসি ফোটানোর নিরন্তর চেষ্টা, হাসপাতাল প্রতিষ্ঠার ইতিহাস, সেবাগ্রহন পদ্ধতি, হাসপাতালে যাওয়ার পথ ইত্যাদি তুলে ধরা হয়েছে। এটি নির্মাণে হাসপাতালে কর্মরত ডাক্তার, নার্স, মেডিকেল টেকনোলজিস্ট, ফার্মাসিষ্ট ও নবীন ক’জন মডেল অংশগ্রহন করেছেন।

প্রামাণ চলচ্চিত্রটির অনলাইন প্রিমিয়ার সময়মতো দেখতে যঃঃঢ়ং://িি.িুড়ঁঃঁনব.পড়স/ধিঃপয?া=ীভঢ৯ড়য়ঙ২২ঐ৮্ষরংঃ=চখয়-অ৯তণজ৮গিঃচস০ভলই৫শয়ৎঢ়ঢ৮ভকয২ঔণ৪- এই লিংকটি ব্রাউজ করে রিমাই-ার বাটনে ক্লিক করে রাখতে পারেন। আগামী ০৩ এপ্রিল শুক্রবার সকাল সোয়া ১০টার পর থেকে বিশ্বের যে কোন প্রান্ত থেকে এ লিংকটি ব্রাউজ করেও মহতি এ প্রামাণ্য চলচ্চিত্রটি দেখা যাবে।

উল্লেখ্য, আগামী ০৭ এপ্রিল ২০২০ মঙ্গলবার বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস। সম্ভাব্য স্বাস্থ্য সুবিধার চূড়ান্ত পরিষেবা প্রদানে ১৯৪৮ সালের ৭ এপ্রিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা প্রতিষ্ঠিত হয় এবং প্রতিষ্ঠা দিবস স্মরণে প্রতিবছর ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস’ হিসাবে পালিত হয়ে আসছে।