পল্লব (দিনাজপুর২৪.কম) জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি তথ্য ও প্রযুক্তির এ যুগে মেধাবী শিক্ষার্থী ছাড়া দেশ ও জাতির উন্নয়ন সম্ভব নয় উল্লেখ করে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শিক্ষিত জাতি গঠনে প্রত্যন্ত গ্রাম অঞ্চলের প্রাইমারী অঞ্চল থেকে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত পড়াশুনা করার সুযোগ করে দিয়েছে। বিনামূল্যে বই, বৃত্তি, উপবৃত্তি শিক্ষা উপকরন প্রদান শিক্ষার্থীদের সহায়ক শক্তি হিসেবে কাজ করছে। ঘরে ঘরে তৈরী হচ্ছে মেধাবী ছাত্রছাত্রী। এসব মেধাবীরাই আগামী দিন দেশ পরিচালনায় দায়িত্বভার গ্রহন করবে। সুখি সমৃদ্ধি বাংলাদেশ গড়ার যে স্বপ্ন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেখছেন মেধাবীরাই সে স্বপ্ন বাস্তবায়নের সৈনিক। এতিমদের টাকা আত্মসাৎ, জ্বালাও পোড়াও, হত্যা, জনগনের সম্পদ ধ্বংসের পথ পরিহার করে এদেশকে অর্থনৈতিক ভাবে সাবলম্বী করার আহবান জানিয়ে বিএনপিকে ইঙ্গিত করে বলেন, আগামী নির্বাচনে লড়াই করে জনগনের আস্থা অর্জন প্রমান করলো। জনগন থেকে বিচ্ছিন্ন বিএনপি জামায়াতকে প্রতিহত করার জন্য আগামী নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে উন্নয়নের ধারাবাহিকতাকে অব্যাহত রাখার আহবান জানান। হুইপ ২২ ফেব্রুয়ারী বৃহস্পতিবার দিনাজপুরের নাজমা রহিম ফাউন্ডেশনের বৃত্তি প্রদান এবং বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক প্রফেসর ডাঃ নাসিমা সুলতানা, জাতি সংঘের স্বাস্থ্য বিষয়ক কর্মকর্তা ডাঃ নাদিরা সুলতানা, হাবিপ্রবির সাবেক ভিসি প্রফেসর রুহুল আমীন, দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান আবু বক্কর সিদ্দিক, দিনাজপুর জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম, সিভি সার্জন ডা: মাওলা বক্স, এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালন ডাঃ সারোয়ার জাহান, উপজেলা চেয়ারম্যান ফরিদুল ইসলাম, ৮নং শেখপুরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ইছাহাক আলী, পাঁচকুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি আব্দুল বাতেন শাহ্। সভাপতিত্ব করেন মোঃ সিরাজুল ইসলাম। শংকরপুর এম.দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতা শেষে শংকরপুর এম.দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়, পাঁচকুর দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়, জালালপুর সরকারি প্রাথমিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭০জন মেধাবী শিক্ষার্থীদের মধ্যে বৃত্তি প্রদান করা হয়। এসময় বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ট সহচর মরহুম এম.আব্দুর রহিমের কন্যা ডাঃ নাদিরা ও ডাঃ নাসিমা ঘোষনা দেন যতদিন রহিম পরিবার থাকবে ততদিন দিনাজপুরে শিক্ষার আলোকে ছড়িয়ে দিতে বৃত্তি প্রদান ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত করার কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে বলে তিনি আশ্বাস দেন।