মো. নজরুল ইসলাম (দিনাজপুর২৪.কম)  দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলায় বিদ্যালয়ের মনবতাহীন শিক্ষকদের অবহেলায় দশম শ্রেণির মেধাবী মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থী আব্দুল আজিম ম-লের মৃত্যুর ঘটনায় দোষী শিক্ষকদের শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন করেছে ওই বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রী, অভিভাবকবৃন্দসহ সাধারণ জনতা।  শনিবার (১০ আগষ্ট) সকাল সাড়ে দশটায় উপজেলার কাটলা দ্বি-মূখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে পাকা রাস্তার উপর আয়োজিত এ মানববন্ধনে ওই বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রী অভিভাবক ও স্থানীয় সাধারণ জনতা অংশগ্রহণ করেন। মানববন্ধনে অংগ্রহণকারীরা শিক্ষার্থী আব্দুল আজিম ম-লের মৃত্যুর ঘটনায় দোষী প্রধানশিক্ষকসহ অন্যান্য শিক্ষকদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করে বক্তব্য দেন।
স্থানীয় ছাত্রনেতা মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, ‘এই বিদ্যালয়টি এক সময় দিনাজপুর জেলার মধ্যে সেরা বিদ্যাপীঠ ছিল। অনেক দূর-দূরান্ত থেকে ছাত্রছাত্রীরা এখানে এসে লেখাপড়া করত। কিন্তু বিগত দশ বছর ধরে এ বিদ্যালয়ে অবৈধভাবে নিয়োগ বাণিজ্যের মাধ্যমে বাহিরের লোকদের নিয়োগ দেয়ায় বিদ্যালয়ের সুনাম ও ঐতিহ্য নষ্ট হয়েছে। আর এরই ধারাবাহিকতায় শিক্ষকদের চরম অবহেলায় আমরা একজন মেধাবী ছাত্রকে হারালাম’।
নিহত ছাত্রের সহপাঠি মহররম বাদশা বক্তব্যে বলে, বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের অবহেলায় আমরা আমাদের একজন মেধাবী ও ক্রিকেট প্রেমিক বন্ধুকে হারিয়েছি। এ ঘটনায় দোষী শিক্ষকদেরকে বিভাগীয় তদন্তের মাধ্যমে শাস্তির ব্যবস্থা করা হোক’।
মানববন্ধনে অংশ নেন স্থানীয় কাটলা ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মো.ইউনুস আলী। তিনি বলেন, এই বিদ্যালয়ের শিক্ষকেদের অবহেলায় আমরা আমাদের এক মেধাবি শিক্ষার্থীকে হারালাম। এর ন্যায্য বিচার না হওয়া পর্যন্ত আমাদের এই আন্দোলন চলবে। তিনি আগামী ২০ আগস্ট বিদ্যালয় ক্যাম্পাসে আবারো ক্লাস বর্জন, বিক্ষোভ মিছিল ও শোকসভার কর্মসূচী ঘোষণা দেন।
মানববন্ধন শেষে ওই বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা একটি বিক্ষোভ র‌্যালি নিয়ে বাজারের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে আবার মানববন্ধন স্থলে এসে শেষ হয়।
উল্লেখ্য, গত ৭ আগস্ট সকালে ওই বিদ্যালয়ের ছাত্র আব্দুল আজিম মন্ডল ক্লাস শুরুর দিকে হঠাৎ গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে। তৎক্ষণাত, অন্যান্য শিক্ষার্থীরা তাকে মটরসাইকেলে করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার জন্য ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের নিকট সহযোগিতা চাইলে কোনো শিক্ষকই সহযোগিতা করতে রাজি হননি। পরে, শিক্ষার্থীরা তাকে ভ্যানযোগে বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। আব্দুল আজিম মন্ডলের মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে ওই বিদ্যালয়ের বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা দুপুরে বিদ্যালয়ের বিভিন্ন কক্ষে ভাংচুর চালায় ও শিক্ষকদের ব্যবহৃত ৬টি মটরসাইকেলে আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে দেয়।