(দিনাজপুর২৪.কম) লুঙ্গি এনগিডির দুর্দান্ত বোলিংয়ে আর ডেল স্টেইনের রেকর্ডের ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে জয় পেয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১ রানের শ্বাসরুদ্ধকর জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে প্রোটিয়ারা।

দক্ষিণ আফ্রিকার ইস্ট লন্ডনের বাফেলো পার্কে বুধবার (১২ ফেব্রুয়ারি) টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ১৭৭ রান করে দক্ষিণ আফ্রিকা। ব্যাট করতে নেমে শুরুটা বেশ ভালোই হয় স্বাগতিকদের। টপ অর্ডারদের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেটের খরচায় ১৭৭ রানের পুঁজি পায় স্বাগতিকরা।

১৭৮ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই উইকেট হারায় সফররতরা। দ্রুত উইকেট পতনের পর প্রোটিয়া বোলারদের ওপর চড়াও হন ওপেনার জেসন রয়। খেলেন ৩৮ বলে ৭০ রানের টর্ণেডো ইনিংস। দলীয় ১৩২ রানে তাঁকে সাজঘরে ফিরিয়ে ঝড়ে কিছুটা লাগাম দেন ফেলুকওয়ায়ো।

কিন্তু উইকেটের এক প্রান্ত আগলে রেখে থেমে থেমে ঝড় চালিয়ে যাচ্ছিলেন মরগান। কিন্তু জো ডেনলি, স্টোকস, কারানের দ্রুত বিদায়ে শঙ্কায় পড়ে যায় ইংল্যান্ড। ৫২ রান করা মরগানকে ফিরিয়ে ঝড় থামান হেনড্রিক্স।

খেলার একেবারে শেষ ওভারটি ছিল রোমাঞ্চকর। দারুণ বল করেন লুঙ্গি। জয়ের জন্য ৭ রান প্রয়োজন ছিল ইংল্যান্ডের। প্রথম ৩ বলে চার রান দিয়ে টম কারানের উইকেট তুলে নেন এনগিডি। শেষ ২ বলে প্রয়োজন ছিল ৩ রান, টাই করতে ২। সেই দুই বলে ১ রান তুলতে মইন আলি ও আদিল রশিদের উইকেট হারায় ইংল্যান্ড।

খেলার শুরুতে ১৫ বলে ৩১ রানের বিস্ফোরক ইনিংসে স্বাগতিকদের উড়ন্ত সূচনা এনে দেওয়া ডি কককে থামিয়ে শুরুর জুটি ভাঙেন মইন। এরপর টেম্বা বাভুমা ও রাসি ফন ডার ডাসেনের ব্যাটে এগিয়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। ১০ ওভারে ছাড়ায় একশ। এরপরই ছন্দপতন। ৩১ রান করা ফন ডার ডাসেনকে ফিরিয়ে ৬৩ রানের জুটি ভাঙেন বেন স্টোকস।

২৭ বলে পাঁচ চারে ৪৩ রান করা বাভুমাকে বিদায় করেন রশিদ। ডেভিড মিলার, জেজে স্মাটস, আন্দিলে ফেলুকওয়ায়ো পারেননি প্রত্যাশিত ঝড় তুলতে। শেষের দিকে ৭ রানের মধ্যে দক্ষিণ আফ্রিকা হারায় চার উইকেট।

রান তাড়ায় শুরুতেই উইকেট হারায় ইংল্যান্ড। তবে ওপেনার জেসন রয় শুরু থেকে চড়াও হন বোলারদের ওপর। দ্রুত এগোলেও পরে জনি বেয়ারস্টোকে থামিয়ে ৭২ রানের জুটি ভাঙেন ফেলুকওয়ায়ো।

অধিনায়ক মর্গ্যান পরে রয়ের সঙ্গে ৪১ রানের জুটিতে ২ উইকেটে ১৩২ রানের দৃঢ় ভিতের ওপর দাঁড়ায় ইংল্যান্ড। তবে জো ডেনলি, স্টোকস, কারানের দ্রুত বিদায়ে শঙ্কায় পড়ে যায় ইংল্যান্ড।

মর্গ্যান-ঝড় থামান হেনড্রিকস। ইংলিশ অধিনায়ক ৩৪ বলে সাত চার ও এক ছক্কায় ফিরেন ৫২ রান করে।

এরপর লুঙ্গির সেই দারুণ ওভার। শেষ বলে দুই রান নিতে গিয়ে রশিদ রান আউট হয়ে গেলে আর কিছুই করার ছিল না ইংল্যান্ডের।

আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে দক্ষিণ আফ্রিকার সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী

১. ডেল স্টেইন – ৪৫ ম্যাচে ৬২ উইকেট, সেরা বোলিং ৯ রানে ৪ উইকেট

২. ইমরান তাহির – ৩৫ ম্যাচে ৬১ উইকেট, সেরা বোলিং ২৩ রানে ৫ উইকেট

৩. মরনে মরকেল – ৪১ ম্যাচে ৪৬ উইকেট, সেরা বোলিং ১৭ রানে ৪ উইকেট

৪. ওয়েইন পারনেল – ৪০ ম্যাচে ৪১ উইকেট, সেরা বোলিং ১৩ রানে ৪ উইকেট

৫. জোহান বোথা – ৪০ ম্যাচে ৩৭ উইকেট, সেরা বোলিং ১৬ রানে ৩ উইকেট

সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি মাঠে গড়াবে শুক্রবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) ডারবানে। আর শেষ ম্যাচটি হবে সেঞ্চুরিয়নে রবিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি)। -ডেস্ক