(দিনাজপুর২৪.কম) লক্ষ্মীপুর-রামগতি সড়কের ভবানীগঞ্জ কলেজ এলাকায় সিএনজি অটোরিকশা ও লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষে নুর বানু ও তার মেয়ে রৌশন আরা বেগম  মারা গেছে। শনিবার রাতে ঢাকা নেয়ার পথে মা নুর বানু ও মেয়ে রৌশন আরা বেগম দুইজন মারা যায়। এর আগে রৌশন আরা বেগমের বড় বোন মারজাহান বেগমের ছেলে শাহরিয়ার হোসেন নিহত হয়। এ নিয়ে একই পরিবারের তিনজন নিহত হয়েছে। নিহতদের বাড়ি সদর উপজেলা ভবানীগঞ্জের ছটকি সাকু নামক এলাকায় বলে জানিয়েছে পুলিশ। সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল মামুন ভূইয়া তিনজন নিহত হওয়ার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
উল্লেখ্য, গতকাল শনিবার বিকেলে তোরাবগঞ্জ বাজার থেকে যাত্রীবাহি লেগুনা পরিবহন লক্ষ্মীপুরের উদ্দেশ্য ছেড়ে আসে। এসময় সদর উপজেলার ভবানীগঞ্জ কলেজ এলাকায় যাত্রীবাহি লেগুনাটি পৌঁছলে সিএনজি অটোরিক্্রার মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এসময় শাহরিয়ার হোসেন নামে ১১ বছরের এক শিশু ঘটনাস্থলে নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে সিএনজি অটোরিক্্রা ও লেগুনার অন্তত ১৫ যাত্রী। আহতদের উদ্ধার করে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে নুর বানু,তার মেয়ে রৌশন আরা, রাজু হোসেন,নুর হোসেন,নুরজাহান বেগমু,শুক্করী বেগমের অবস্থায় আশংকাজনক। গুরুতর আহত নুর বানু ও তার মেয়ে রৌশন আরা বেগমকে শনিবার রাতে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতাল থেকে ঢাকার নেয়ার পথে কুমিল্লায় তারা দুইজন মারা যায়। ্এনিয়ে একই পরিবারের মা-মেয়েসহ নিহত হয়েছেন তিনজন। এখানে তিনজনের অবস্থায় আশংকাজনক বলে জানিয়েছেন সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ আনোয়ার হোসেন।-ডেস্ক