(দিনাজপুর২৪.কম) বড়দিন বা ২৫ শে ডিসেম্বরের আগেই করোনা ভাইরাসের টিকা সরবরাহ শুরু করতে পারে ফাইজার-বায়োএনটেক। পরীক্ষার চূড়ান্ত দফায় শতকরা ৯৫ ভাগ সফলতা দেখার পর তারা যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপে এই টিকা জরুরি ভিত্তিতে প্রয়োগের জন্য কর্তৃপক্ষের অনুমতি চেয়েছে। সেই অনুমতি আগামী মাসেই তারা পেতে পারে বলে খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। এতে বলা হয়েছে, ফাইজার তার টিকায় কোনো মারাত্মক পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই বলে দাবি করেছে বুধবার। বিভিন্ন বয়সী মানুষ ও বিভিন্ন জাতিগোষ্ঠীর মধ্যে এই টিকা প্রয়োগ করা হয়েছিল।। তাতে কার্যকর ফল এসেছে। উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাস সবচেয়ে বশি সংক্রমিত করে বয়স্ক এবং কৃষ্ণাঙ্গ সহ সুনির্দিষ্ট কিছু গ্রুপের মানুষকে। রয়টার্স টিভিকে বায়োএনটেকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা উগুর শাহিন বলেছেন, ডিসেম্বরের মাঝামাঝি জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহারের জন্য তাদের টিকা অনুমোদন দিতে পারে যুক্তরাষ্ট্রের ফুড এন্ড ড্রাগ এডমিনিস্ট্রেশন (এফডিএ)। ডিসেম্বরের দ্বিতীয় অর্ধাংশে শর্তসাপেক্ষ টিকা অনুমোদন দিতে পারে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন। তিনি আরো বলেন, যদি সবকিছু ঠিকঠাক মতো অগ্রসর হয় তাহলে আমরা আশা করছি ডিসেম্বরের দ্বিতীয় অর্ধাংশে অনুমোদন পেয়ে যাবো এবং বড়দিনের আগেই টিকা সরবরাহ দেয়া শুরু করতে পারবো। খবরে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের ওষুধ প্রস্তুতকারক কোম্পানি ফাইজার এবং তাদের জার্মান অংশীদার বায়োএনটেকের গ্রহণযোগ্যতা অনেক বেশি। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, করোনা ভাইরাস মহামারি শেষ করতে এটি একটি বড় অর্জন। ফাইজারের পরীক্ষা চালানো হয়েছে ৪৩ হাজার মানুষের ওপর। এর মধ্যে ১৭০ জন স্বেচ্ছাসেবক ছিলেন করোনায় আক্রান্ত। পরীক্ষায় ১৬২ জনকে দেয়া হয়েছে একটি প্লেসিবো, টিকা নয়। তাতে দেখা গছে এই টিকা শতকরা ৯৫ ভাগ কার্যকর। -ডেস্ক