1. dinajpur24@gmail.com : admin :
  2. dinajpur24@gmail.com : akashpcs :
  3. self@unliwalk.biz : brandymcguinness :
  4. ChristineTrent91@basic.intained.com : christinetrent4 :
  5. Dinah_Pirkle28@lovemail.top : dinahpirkle35 :
  6. cruz.sill.u.s.t.ra.t.eo91.811.4@gmail.com : howardb00686322 :
  7. azegovvasudev@mail.ru : latricebohr8 :
  8. kenmacdonald@hidebox.org : moset2566069 :
  9. news@dinajpur24.com : nalam :
  10. NonaShenton@miss.kellergy.com : nonashenton3144 :
  11. vaughnfrodsham2412@456.dns-cloud.net : reneseward95 :
  12. Sonya.Hite@g.dietingadvise.club : sonya48q5311114 :
  13. jcsuave@yahoo.com : vaniabarkley :
সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ০৪:৩১ অপরাহ্ন
নোটিশ :
নতুন রুপে আসছে দিনাজপুর২৪.কম! ২০১০ সাল থেকে উত্তরবঙ্গের পুরনো নিউজ পোর্টালটির জন্য দেশব্যাপী সাংবাদিক, বিজ্ঞাপনদাতা প্রয়োজন। সারাদেশে সংবাদকর্মী নিয়োগ দেয়া হবে। আগ্রহীরা এখনই প্রয়োজনীয় জীবন বৃত্তান্ত সহ সিভি dinajpur24@gmail.com এ ইমেইলে পাঠান।

রোহিঙ্গা ইস্যুতে আলোচনায় বসছে মিয়ানমার-ইন্দোনেশিয়া

  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬
  • ০ বার পঠিত

rohingya-dinajpur24(দিনাজপুর২৪.কম) রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে খোলাখুলি আলোচনায় ইন্দোনেশিয়াকে আমন্ত্রণ জানাল মিয়ানমার। রোহিঙ্গা নিধনের বিষয়ে মিয়ানমার সারা বিশ্বের রোষের মুখে পড়েছে। মানবাধিকার লঙ্ঘণের মতো গুরুতর অভিযোগও আনা হয়েছে এশিয়ার এই দেশটির বিরুদ্ধে। তবে তার মধ্যে একটুখানি প্রশান্তির বাতাস বুলিয়ে দিলো ইন্দোনেশিয়া। রোহিঙ্গা ইস্যুতে প্রথম থেকেই মিয়ানমারকে সমর্থন দিয়ে আসছে দেশটি। মিয়ানমারও ইন্দোনেশিয়ার এ সমর্থনকে স্বাগত জানিয়েছে।

এবার মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা ও পররাষ্টমন্ত্রী অং সান সুচির আমন্ত্রণে মঙ্গলবার ইন্দোনেশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী মিয়ানমার সফর করছেন। ইন্দোনেশিয়ার সংবাদমাধ্যম জাকার্তা পোস্ট জানায়, রোহিঙ্গা ইস্যুতে যে জটিলতার সৃষ্টি হয়েছে সে ব্যাপারে খোলামেলা আলোচনায় বসবেন দুই দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। এর আগে বেশ কয়েকবার মিয়ানমারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুচি ইন্দোনেশিয়া সফরের উদ্যোগ নিয়েছিলেন। কিন্তু রোহিঙ্গা ইস্যুতে বিশ্ব নেতাদের কাছে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়ে সফর বাতিল করতে বাধ্য হন তিনি।

চলতি বছরের ৯ অক্টোবর মিয়ানমারের সীমান্তে অবস্থিত একটি পুলিশ পোস্টে হামলা চালানো হয়। এ হামলার জন্য রোহিঙ্গাদের দায়ী করে দেশটির সেনাবাহিনী। এরপরই রোহিঙ্গাদের ওপর দমন-নিপীড়ন শুরু হয়। মিয়ানমারের লন্ডনভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থা বার্মা হিউম্যান রাইটস নেটওয়ার্ক জানায়, ব্যাপকহারে রোহিঙ্গাদের ঘরবাড়ি পুড়িয়ে দেয়া হচ্ছে, তাদের ধর্ষণ, যৌন হয়রানি, নির্যাতন ও হত্যা করা হচ্ছে। এ পর্যন্ত কমপক্ষে ৩০ হাজার রোহিঙ্গাকে নিজেদের আবাস থেকে বিতাড়ন করা হয়েছে। চলমান সংঘাতের কারণে ৭০ হাজারেরও বেশি নিরপরাধ রোহিঙ্গা খাবারের কষ্টে ভুগছে। কোনো ধরনের সহায়তাই পাচ্ছে না তারা।   -ডেস্ক

নিউজট শেয়ার করুন..

এই ক্যাটাগরির আরো খবর