(দিনাজপুর২৪.কম) স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, রোগী জিম্মি করে ধর্মঘটকে সমর্থন করা যায় না। শনিবার সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ৩১ শয্যার কিডনি ডায়ালাইসিস সেন্টারের উদ্বোধন শেষে ইন্টার্ন চিকিৎসকদের ধর্মঘট বিষয়ে নাসিম সাংবাদিকদের এ কথা বলেন। বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চার ইন্টার্ন চিকিৎসকের ইন্টার্নশিপ ছয় মাসের জন্য স্থগিতের প্রতিবাদে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ইন্টার্ন চিকিৎসকেরা কর্মবিরতি পালন করছেন। অবশ্য চমেক হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসকেরা আজ এই কর্মসূচি পালন করেননি।

ইন্টার্ন চিকিৎসকদের কর্মবিরতি সংক্রান্ত প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘এটি দুঃখজনক। ইন্টার্নদের ভাতা আমি বাড়িয়েছি। রোগীকে জিম্মি করে কেউ ধর্মঘট করুক, সেটা আমরা সমর্থন করি না। সে ডাক্তার হোক বা শ্রমিক হোক। একটি ঘটনাকে কেন্দ্র করে, ওখানে (বগুড়ায়) যাদের মাধ্যমে রোগীর স্বজনেরা আক্রান্ত হয়েছিল, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। আশা করি ইন্টার্ন চিকিৎসকেরা তাদের ভুল বুঝতে পারবেন।’ ইন্টার্ন চিকিৎসকদের ধর্মঘটের সময় জ্যেষ্ঠ চিকিৎসকেরা কষ্ট করে স্বাস্থ্যসেবা দিয়ে যাচ্ছেন বলে মন্ত্রী জানান।

এর আগে মন্ত্রী হাসপাতাল ভবনের নিচতলায় পিপিপির আওতায় ৩১ শয্যাবিশিষ্ট কিডনি ডায়ালাইসিস সেন্টারের নামফলক উন্মোচন করেন। পরে তিনি কেন্দ্রটি ঘুরে দেখেন এবং সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের সঙ্গে কথা বলেন।৩১ শয্যার ডায়ালাইসিস সেন্টারটিতে একজন রোগীর একবার ডায়ালাইসিস করাতে ব্যয় হবে ২ হাজার ১৯০ টাকা। তবে চমেক হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের রেফারেন্স নিয়ে ডায়ালাইসিস করালে খরচ পড়বে ৪০০ টাকা। -ডেস্ক