hannan shah-dinajpur24(দিনাজপুর২৪.কম) রামপাল তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্পের বিরুদ্ধে গড়ে ওঠা আন্দোলন চলবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) আসম হান্নান শাহ। তিনি  বলেছেন, বিদ্যুৎ বন্ধ করে দিলেও দেশের জন্য ক্ষতিকর এই প্রকল্প জনগণ প্রতিরোধ করবে। রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির মিলনায়তনে রোববার জাতীয়তাবাদী প্রজন্ম ৭১ আয়োজিত গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের সংগ্রাম ও জাতীয় ঐক্য শীর্ষক এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।  সুন্দরবনের অদূরে রামপালে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্পকে দেশ ও গণবিরোধী অভিহিত করে গত বুধবার অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এই প্রকল্প বাতিল করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া। তার ওই বক্তব্যের দুদিন পর শনিবার বিকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ওই প্রকল্পে সুন্দরবনের কোনো ক্ষতি হবে না। এরপর রাতেই প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য চ্যালেঞ্জ করে খালেদা জিয়া বলেন, ওই প্রকল্পের কারণে দেশের সবচেয়ে বড় ক্ষতি হবে।
হান্নান শাহ বলেন, সুন্দরবন রক্ষায় দেশের জন্য ক্ষতিকর রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রতিরোধে জনগণ আন্দোলন করবেই। পারলে বিদ্যুৎ বন্ধ করে দিক। জনগণ দুঃশাসনের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে রুখে দাঁড়াবে। বিএনপি প্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের মরণোত্তর স্বাধীনতা পদক প্রত্যাহারের জন্য মন্ত্রিসভা কমিটির সিদ্ধান্তের সমালোচনা করে বিএনপির এই নেতা বলেন, আওয়ামী লীগ জিয়াউর রহমানকে সহ্য করতে পারে না। কারণ তিনি তাদের তৈরি করা বাকশাল বন্ধ করে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত করেছিলেন। তিনি বলেন,  জিয়াউর রহমান বীর উত্তমের পদক কেড়ে নেবেÑ এই ঘোষণায় আমি বিচলিত নই। আমি চিন্তিত এই ভেবে- তাদের শেষ পরিণতি কোথায় গিয়ে পৌঁছাবে? সর্বদলীয় সংলাপ ডেকে জাতীয় ঐক্য গঠন করে একটি অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের আয়োজন করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ঢালী আমিনুল ইসলাম রিপনের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন- জাগপার সভাপতি শফিউল আলম প্রধান, বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য আহসান হাবিব লিংকন প্রমুখ। -ডেস্ক