-সংগ্রহীত

(দিনাজপুর২৪.কম) রাজধানীর গুলশানে হলি আর্টিসান রেস্তোরাঁয় জঙ্গি হামলার ঘটনায় দায়ের করা মামলার রায় আজ বুধবার (২৭ নভেম্বর) দুপুরে ঘোষণা করা হবে। এ রায় ঘোষণাকে কেন্দ্র করে আদালত পাড়াসহ রাজধানী ও সারাদেশে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পক্ষ থেকে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

একই সঙ্গে নিরাপত্তা ব্যবস্থপনায় নিয়োজিত সংশ্লিষ্ট সদস্যদের দায়িত্ব পালনে যথাযথ সতর্কতা অবলম্বন করতে নির্দেশ দিয়েছে পুলিশ সদর দফতর।

ভয়াবহ এ জঙ্গি হামলার রায়কে ঘিরে গতকাল মঙ্গলবার থেকেই ঢাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার (২৬ নভেম্বর) দুপুরে ঢাকার আদালত পাড়া পরিদর্শন করেছেন ডিএমপির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। সে সময় রায় উপলক্ষে ঢাকার আদালত পাড়ায় বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণের কথা জানায় ডিএমপি। এছাড়া প্রয়োজন মনে হলে রায় ঘোষণার পরও নিরাপত্তা জোরদার থাকবে বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

-সংগ্রহীত

মঙ্গলবার দুপুরে র‌্যাব সদর দফতরে হলি আর্টিসান হামলার রায়কে সামনে রেখে র‌্যাব ডিজি বেনজীর আহমেদ উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে সাংবাদিকদের বলেন, হলি আর্টিসান হামলার মামলার ঘটনায় নিম্ন আদালতের রায়কে কেন্দ্র করে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।রায়কে সামনে রেখে আজ (মঙ্গলবার) থেকেই নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। রায় ঘোষণার পরও এ নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার থাকবে। প্রয়োজন মনে হলে যে কয়দিন নিরাপত্তা জোরদার রাখা দরকার সে কয়দিনই রাখা হবে।

পুলিশ সদর দফতরের এআইজি (মিডিয়া অ্যান্ড পিআর) মো. সোহেল রানা বলেন, গুলশানে হলি আর্টিসান রেস্তোরাঁয় জঙ্গি হামলার ঘটনায় দায়ের করা মামলার রায় ঘিরে পর্যাপ্ত নির‌াপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। তারপরও নিরাপত্তায় নিয়োজিত সংশ্লিষ্ট পুলিশ সদস্যদেরকে দায়িত্ব পালনে যথাযথ সতর্কতা অবলম্বন করতে পুলিশ সদর দফতর থেকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

হলি আর্টিসান রেস্তোরাঁয় জঙ্গি হামলার মামলার রায় উপলক্ষে ঢাকার আদালত পাড়ায় বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি প্রসিকিউশন) জাফর হোসেন। তিনি বলেন, হলি আর্টিসান মামলার রায় উপলক্ষে ডিএমপির দুই অতিরিক্তি পুলিশ কমিশনার আদালত এলাকা পর্যাবেক্ষণ করেছেন। তারা বিশেষ নিরাপত্তার বিষয়ে দিক নির্দেশনা দিয়েছেন। যদিও হামলার কোনো আশঙ্কা নেই, তবে আমাদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার থাকবে।

-সংগ্রহীত

ঢাকা মহানগর আদালতের হাজতখানার ওসি মঈনুল ইসলাম বলেন, হাজাতখানা থেকে এজলাসে আসামিদের আনা নেয়ার ক্ষেত্রে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ঢাকার আদালত পাড়া পরিদর্শন করেছেন ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মীর রেজাউল আলম ও কৃষ্ণ পদ রায়। পরিদর্শন শেষে তারা আদালত পাড়ার বিশেষ নিরাপত্তায় লালবাগ ডিভিশন ও আদালতের ডিসি প্রসিকিউশনকে বিভিন্ন দিক নির্দেশনা দিয়েছেন।

এদিকে বুধবার সকালে সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টগুলোতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। সতর্ক প্রহরায় নিয়োজিত রয়েছে পুলিশ ও র‌্যাব সদস্যরা। ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ও স্পর্শকাতর স্থাপনায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

জানা গেছে, ধর্মীয় উপাসনালয়গুলোতে নেয়া হয়েছে নিরাপত্তা ব্যবস্থা। সার্বিক নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে কূটনৈতিক এলাকাতেও। এছাড়াও গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন সড়কে পুলিশের বিশেষ চেকপোস্ট বসানো হয়েছে।

রাজধানীর নিরাপত্তা ব্যবস্থা সম্পর্কে ঢাকা মহানগর পুলিশের যুগ্ম কমিশনার (ক্রাইম) শেখ নাজমুল আলম বলেন, ‘ঢাকার নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। ডিএমপির প্রতিটি থানা ও পুলিশ ফাঁড়ির নিরাপত্তা জোরদার করতে বলা হয়েছে। বিভিন্ন সড়কে তল্লাশি চৌকি বাড়ানো হয়েছে। রায় ঘিরে কোনো কুচক্রি মহল যেন কোনো ধরনের অপ্রীতিকর কিছু ঘটাতে না পারে সে জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। নগরবাসীর আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই।’ -ডেস্ক