(দিনাজপুর২৪.কম) রমজান মাসের প্রথম দিনেই সবজি, চাল, ডাল, মাছ, মাংস, পেঁয়াজসহ সব পণ্যের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। রোজাকে কেন্দ্র করেই অসাধু ব্যবসায়ীরা এভাবে দাম বাড়িয়ে দিয়েছে বলে জানা গেছে।

রাজধানীর কলাবাগান, শুক্রাবাদ, ফার্মগেট, টাউন হল বাজার, কারওয়ান বাজার, শান্তিনগর, সেগুনবাগিচাসহ কয়েকটি বাজার ঘুরে দেখা গেছে, কোনো ব্যবসায়ীই নিয়মের মধ্যে পণ্য বিক্রি করছে না।  দুই দিন আগেও যে কাঁচা মরিচ ৫০-৬০ টাকায় দীর্ঘদিন স্থিতিশীল ছিল, সেটি বিক্রি হয়েছে ৮০ থেকে ১০০ টাকায়। অন্যদিকে, বেগুন বিক্রি হতো ৪০ টাকা কেজিতে, তা গতকাল রবিবার প্রথম রোজার দিন বিক্রি হয় ৭০-৮০ টাকায়।

বেগুন-কাঁচা মরিচের দাম এত বেশি কেন জানতে চাইলে এক বিক্রেতা বলেন, ‘আমরা প্রথম পাঁচ রোজায় যে পরিমাণ বিক্রি করি, রোজার পরের ২৫ দিনেও তা করতে পারি না। এ সময় তাই একটু দাম বেশি থাকে। ’ এইটা নিয়ম বলে জানান তিনি।

অন্যদিকে, গরুর মাংস ৪৭৫ টাকায় বিক্রি করার কথা থাকলেও তা ৫৩০ টাকার কমে পাওয়া যাচ্ছে না।  এ বিষয়ে জানতে চাইলে সেখানকার এক মাংস বিক্রেতা বলেন, ‘দাম ঠিক করা হইছে, নেতারা করছে। আমরা এই সময় একটু ব্যবসা না করলে কখন করুম। ’

এ ছাড়া পেঁয়াজের কেজিতেও ১০ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে। দেশি পেঁয়াজ পাইকারি বাজারে ঠিক থাকলেও খুচরা বাজারে ৪০ টাকা কেজি বিক্রি হতে দেখা গেছে গতকাল।  আমদানি করা পেঁয়াজ পাঁচ টাকা বেশিতে ৪৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। তবে পরিবর্তন আসেনি সয়াবিন তেলের দামে।

পাশাপাশি, চালের খুচরা বাজারে অস্থিরতা বেড়েই চলেছে। মিনিকেট চাল কেজিতে এক টাকা বেড়ে গতকাল কাওরান বাজারে বিক্রি হয়েছে ৫২ থেকে ৫৫ টাকায়। প্রতি কেজি নাজিরশাইল চাল বিক্রি হয় ৫৪ থেকে ৫৮ টাকায়। মোটা চালের দাম আরেক দফা বেড়ে বিক্রি হয় ৪৫ থেকে ৪৬ টাকায়। -ডেস্ক