হারুন উর রশিদ সোহেল, রংপুর (দিনাজপুর২৪.কম) আঞ্চলিক ভাষার যথাযথ সংরক্ষণ-গবেষণা, দেশের সর্বস্তরে বাংলা ভাষার ব্যবহার ও বিশ্বের কাছে বাংলা ভাষাকে আরো শ্র“তিমধুর ভাষা হিসেবে তুলে ধরতে সরকারকে আরো উদ্যোগী হতে আহ্বান জানিয়েছে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে আসা মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী প্রগতিশীল রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দসহ সাধারণ মানুষ। মঙ্গলবার রংপুর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও শহীদ দিবসের প্রথম প্রহর শুরু হয় পুষ্পমাল্য অর্পণ, কালো ব্যাজ ধারণ কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে। এছাড়া রাতের আধার শেষ হবার সাথে সাথেই জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে বিভিন্ন স্থান থেকে শ্রদ্ধা জানাতে আসা মানুষের স্রোত গিয়ে মিশে যায় শহীদ মিনারের পাদদেশে। বিভিন্ন স্থানে রাজনৈতিক, সামাজিক সাংস্কৃতিক, পেশাজীবী ও ছাত্র সংগঠনের শ্রদ্ধা নিবেদনের পাশাপাশি শুরু হয় আলোচনা সভা, শোক র‌্যালী, বিশেষ প্রার্থনাসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠান মালার আয়োজন। এদিকে রাতের প্রথম প্রহরে বারোটা এক মিনিটে পাবলিক লাইব্রেরী মাঠে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্দ এরশাদ ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। এরপর সিটি করপোরেশনের মেয়র সরফুদ্দীন আহম্মেদ ঝন্টু, বিভাগীয় কমিশনার কাজী হাসান আহম্মেদ, ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীন, পুলিশের রংপুর রেঞ্জেরে ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুখ বিপিএম, পিপিএম, পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, জেলা পরিষদ প্রশাসক ছাফিয়া খানমসহ সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলরবৃন্দ, পুলিশ প্রশাসন।এছাড়াও শহীদ মিনারে ফুলেল শ্রদ্ধা জানান জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মমতাজ উদ্দিন আহম্মেদ ও সাধারন সম্পাদক এ্যাডভোকেট রেজাউল করিম রাজু এবং মহানগর সভাপতি শাফিয়ার রহমান সফি ও সাধারন সম্পাদক তুষার কান্তি মন্ডলের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ, জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মেহেদী হাসান রনি ও সাধারন সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিবের নেতৃত্বে ছাত্রলীগসহ আওয়ামী লীগের অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনসহ জাতীয় পার্টি, বিএনপি, জাসদ, বাসদ এবং বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা। এসময় বিভিন্ন স্কুল, কলেজ ও মাদরাসার শিক্ষার্থীরাও অংশ নেন। এদিকে সকালে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিসি ড. নুর-উন-নবী চৌধুরীর নেতৃত্বে ক্যাম্পাসে শোক র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা কর্মচারীসহ ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা অংশ নেন।এছাড়া কারমাইকেল কলেজ, রংপুর সরকারি কলেজ, সরকারি বেগম রোকেয়া কলেজ,আরাজী তামপাট একরামিয়া এবতেদায়ী মাদরাসা, রংপুর আর্দশ উচ্চ বিদ্যালয়, কাউনিয়া মোফাজ্জাল হোসেন উচ্চ বিদ্যালয়, মাহিগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ, তাজহাট উচ্চ বিদ্যালয়, জিয়াতপুকুর মাজার শরীফ দাখিল মাদরাসাসহ নগরীর বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে দিবসটি উপলক্ষ্যে শোক সভা, শিশু-কিশোরদের সাহিত্য-সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ও পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।