(দিনাজপুর২৪.কম) যৌন কেলেঙ্কারিতে জেরবার নিউ ইয়র্কের গভর্নর অ্যানড্রু কুমো। একে একে সাতজন নারী তার বিরুদ্ধে যৌন অসদাচারণের অভিযোগ এনেছেন। ফলে গভর্নর কুমোর পদত্যাগের দাবি জোরালো হচ্ছে। তার নিজের রাজ্য নিউ ইয়র্কের সিনেটররা পর্যন্ত তার পদত্যাগ দাবি করেছেন। এমন সিনেটরের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। ফলে এক তালগোল পাকানো অবস্থায় পড়েছেন তিনি। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি। এতে বলা হয়েছে, গভর্নর কুমোর পদত্যাগ দাবি করেছেন ডেমোক্রেট দলের সিনেটর চাক শুমার, ক্রিস্টেন গিলিব্রান্ড।

তারা বলেছেন, নিউ ইয়র্কারদের আস্থা হারিয়ে ফেলেছেন কুমো। তাই তার পদত্যাগ করা উচিত। তার বিরুদ্ধে ছয়জন নারী অভিযোগ করেছেন। তারা বলেছেন, কুমো তাদেরকে অনাকাঙ্খিতভাবে চুম্বন করেছেন এবং যৌন উত্তেজিত করেছেন। এর সঙ্গে শুক্রবার যুক্ত হয়েছেন আরো একজন নারী। তিনি ইউ ইয়র্কের সাবেক একজন সাংবাদিক। তিনিও বলেছেন, তাকে হয়রান করেছেন কুমো। কিন্তু এসব অভিযোগ পুরোটাই প্রত্যাখ্যান করেছেন কুমো নিজে। ডেমোক্রেট সিনেটররা তার পদত্যাগের যে আহ্বান জানিয়েছেন, তিনি তার বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছেন। সপ্তম নারী শুক্রবার তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনার আগে কুমো বলেছেন, যেসব অভিযোগ করা হয়েছে তার কিছুই আমি করিনি। আমি কোনোদিন কাউকে হয়রান করিনি। কাউকে অবমাননা করিনি। কাউকে নির্যাতন করিনি।
ওদিকে শুক্রবারই একটি বিবৃতি দিয়েছেন সিনেট সংখ্যাগরিষ্ঠ নেতা চাক শুমার ও মিসেস গিলিব্রান্ড। এতে তারা বলেছেন, অনেক বিশ্বাসযোগ্য যৌন হয়রানির ও অসদাচরণের অভিযোগের প্রেক্ষিতে এটা পরিষ্কার হয়েছে যে, গভর্নর কুমো তার শাসকদলীয় অংশীদার এবং নিউ ইয়র্কের মানুষের আস্থা হারিয়েছেন। তাই তার পদত্যাগ করা উচিত। এর আগে নিউ ইয়র্কের কংগ্রেসওম্যান আলেক্সান্দ্রিয়া ওকাসিও-কর্টেজ এবং কংগ্রেসম্যান জামাল বোম্যান একটি যৌথ বিবৃতি দিয়েছেন। তাতে তারা বলেছেন, আমরা অভিযোগকারী নারীদের বক্তব্য বিশ্বাস করি। তারা যে রিপোর্ট করেছেন তা বিশ্বাস করি। আমরা বিশ্বাস করি এটর্নি জেনারেলকে। আমরা নিউ ইয়র্ক রাজ্যের ৫৫ সদস্য বিশিষ্ট লেজিসলেটচারকে বিশ্বাস করি। এর মধ্য দিয়ে তারা ওইসব লেজিসলেচার বা আইন প্রণেতাকে বুঝিয়েছেন যারা কুমোর পদত্যাগ দাবি করেছেন। এতে তারা আরো দাবি করেছেন এত সব চ্যালেঞ্জের মুখে কার্যকরভাবে আর নেতৃত্ব দিতে পারেন না গভর্নর কুমো। নিউ ইয়র্কে দীর্ঘদিনের রাজননৈতিক প্রতিপক্ষ নিই ইয়র্ক সিটির মেয়র বিল ডি ব্লাসিও। তিনি বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের বলেছেন, সর্বশেষ যেসব অভিযোগ করা হচ্ছে, তা আমাকে কাছে একটি ঘৃণ্য বিষয়। এর ফলে তিনি আর গভর্নর থাকতে পারেন না।
অ্যানড্রু কুমোর ক্ষমতার মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা ২০২২ সালে। গত বছর তিনি নিজের রাজ্যে যেভাবে করোনা মহামারি মোকাবিলা করেছেন তার জন্য তার প্রশংসা করা হয়েছে। কিন্তু এই বছর রাজ্যের নার্সিং হোমগুলোতে করোনা ভাইরাসে মৃত্যুর জন্য সমালোচিত হয়েছেন তিনি। বৃহস্পতিবার রাজ্যের আইনসভার স্পিকার কার্ল সেস্টি বলেছেন, কুমোর বিরুদ্ধে যে অভিযোগ আনা হয়েছে তার ভিত্তিতে তাকে অভিশংসন করতে তদন্তে সম্মতি দিয়েছেন। এই তদন্তের প্রথম দিকেই প্রত্যক্ষদর্শীদের সাক্ষাৎকার নেয়া হবে। তথ্যপ্রমাণ যাচাই করে দেখা হবে। তারপর অভিশংসনের পথে অগ্রসর হবে রাজ্য আইনসভা। এ খবরে কুমো বলেছেন, তিনি নিরপেক্ষ একটি তদন্তের ফলাফল পর্যন্ত অপেক্ষা করবেন। এই তদন্ত করছেন নিউ ইয়র্ক রাজ্যের এটর্নি জেনারেল লেতিতিয়া জেমস। -ডেস্ক