(দিনাজপুর২৪.কম) মঙ্গলবার লন্ডনে উদযাপিত হচ্ছে পবিত্র ঈদ উল ফিতর। বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সদস্যরা এবার বিশ্বকাপ সফরেই উদযাপন করবেন ঈদ। ক্রিকেটাররা কোথায় ঈদের নামাজ পড়বেন সেটি নিয়ে কয়েকদিন ধরেই ভক্ত-সমর্থকদের আগ্রহের শেষ নেই। নিউজিল্যান্ডে মসজিদে হামলার ঘটনার পর থেকে জাতীয় দলের নিরাপত্তা নিয়েও উদ্বেগ রয়েছে সবার মাঝে। ওই হামলায় অল্পের জন্য বেঁচে গিয়েছিল তামিম-মুশফিকরা।

এবারের ঈদে টাইগার ক্রিকেটাররা দল বেধে টিম বাসে নামাজ পড়তে যেতে চেয়েছিলেন; কিন্তু ক্রিকেটের সর্বোচ্চ অভিভাবক সংস্থা (আইসিসি) জানিয়েছে ঈদের নামাজে যাওয়ার ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক নিরাপত্তা দিতে অপারগতার কথা।

বিষয়টি মূলতঃ কোনো ক্রিকেটার কিংবা দলকে নিয়ে ঝুঁকি নিতে চায় না ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থাটি। এ কারণে কৌশল পাল্টেছে টিম ম্যানেজমেন্ট।

জাতীয় দলের ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন জানিয়েছেন, একসঙ্গেই ঈদের নামাজ পড়বে টাইগাররা। তবে সেটিতে কোন আনুষ্ঠাকিতা থাকবে না। টিম বাসে নয় বিচ্ছিন্নভাবে কিছু ট্যাক্সি বা মাইক্রোবাস নিয়ে নামাজ পড়তে যাবেন মাহমুদউল্লাহ-মুশফিক-সাকিবরা। এক্ষেত্রে কোলাহলপূর্ণ জায়গা ছেড়ে শহর থেকে দূরে কোনো মসজিদে ঈদের নামাজ পড়তে যাওয়ার কথা রয়েছে যেখানে মানুষের ভিড় থাকবে কম।

সুজন একটি অনলাইন পত্রিকাকে বলেছেন, ‘লন্ডনে প্রচুর মুসলিম বাঙালি, পাকিস্তানি, ভারতীয়সহ অনেক মানুষের সমাবেশ হবে। মূলত এতো ভিড়ের মধ্যে ১৫ জন ক্রিকেটার, দলের ম্যানেজারসহ ১৭-১৮ জন মানুষের নিরাপত্তা দেয়া কঠিন। এ কারণেই আইসিসি অপারগতা প্রকাশ করেছে।’ -ডেস্ক