(দিনাজপুর২৪.কম) মেয়েদের টি২০ বিশ্বকাপ মানেই অস্ট্রেলিয়ার আধিপত্য। চলমান বিশ্বকাপেও তা দেখা যাচ্ছে। বুধবার ইংল্যান্ডকে ৫ রানে হারিয়ে টানা চতুর্থবারের মতো টি২০ বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেছে অস্ট্রেলিয়ার মেয়েরা। এটি মেয়েদের পঞ্চম টি২০ বিশ্বকাপের আসর। এর আগের তিন আসরে টানা শিরোপা জিতেছে অস্ট্রেলিয়া। ২০০৯ সালে প্রথম আসরের শিরোপা জিতেছিল ইংল্যান্ড। এরপর সব শিরোপাই (তিনটি) গেছে অসি মেয়েদের ঘরে।

দিল্লির ফিরোশ শাহ কোটলা স্টেডিয়ামে টসে হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৩২ রান সংগ্রহ করে অস্ট্রেলিয়া। জবাবে সাত উইকেটে ১২৭ রান সংগ্রহ করে ইংল্যান্ড।

জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালোই ছিল ইংল্যান্ডের। উদ্বোধনী জুটিতে তারা করে ৬৭ রান। ৮৯ রানে পড়ে দ্বিতীয় উইকেট। অথচ সেখানে ১১৭ রানে নেই সাত উইকেট। শেষের দিকে দ্রুত উইকেট যাওয়ার কারণে রানের গতি কমে যায়। শেষ পর্যন্ত ইংলিশ মেয়েদের হারতে হয় মাত্র ৫ রানে। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৩২ রান করেন ওপেনার বেওমন্ট। এছাড়া অধিনায়ক এডওয়ার্ডস ৩১, টেইলর ২১, ওয়েট অপরাজিত ১০ রান করেন। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে মেগান স্কুট দুটি, পেরি, ফারেল, বিমস, ওসবর্ন একটি করে উইকেট নেন।

এর আগে ব্যাট করতে নেমে অস্ট্রেলিয়াকে শুভ সূচনা এনে দেন দুই ওপেনার আলি হিলি ও অ্যালিসি ভিলানি। ওপেনিং জুটিতে ৪১ রান যোগ করেন তারা। স্কিভারের শিকার হয়ে প্রথমে সাজঘরে ফেরেন ভিলানি। ২০ বলে চারটি চারের মারে করেন ১৯ রান।

আর মার্শের বলে এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়ার আগে হিলির ব্যাট থেকে আসে ১৫ বলে পাঁচটি চারে সাজানো ২৫ রান। অ্যালিসি পেরির ব্যক্তিগত ইনিংসটি থামে ১০ রানে। ১৩ বলে ১১ রান করা ব্লাকওয়েল কাটা পড়েন রানআউটে।

অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে সর্বোচ্চ ৫৫ রান করেন মেগ ল্যানিং। অসি অধিনায়কের ৫০ বলের মূল্যবান এই ইনিংসটি ছিল ছয়টি চারে সমৃদ্ধ। স্কিভারের বলে নাইটের হাতে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন ল্যানিং। ইংল্যান্ডের পক্ষে ২২ রান খরচায় ২ উইকেট নেন স্কিভার। একটি করে উইকেট নেন মার্শ ও জেনি গান।  -ডেস্ক