-ফাইল ছবি

(দিনাজপুর২৪.কম) বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান, ঢাকার সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার শারীরিক অবস্থা খুবই গুরুতর। তিনি এখন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের ম্যানহাটনের একটি বিশেষায়িত ক্যান্সার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

তার ছেলে প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন খোকা গণমাধ্যমকে বলেন, আমার বাবার (সাদেক হোসেন খোকা) শারীরিক অবস্থা ভালো নেই। মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে যাচ্ছেন তিনি। তার অবস্থা ক্রমেই গুরুতর হচ্ছে। দেশবাসীর কাছে বাবার রোগমুক্তির জন্য দোয়া চাই।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গণমাধ্যমকে বলেন, আমাদের দলের ভাইস চেয়ারম্যান সাদেক হোসেন খোকা ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে অত্যন্ত অসুস্থাবস্থায় হাসপাতালে আছেন এবং মুমূর্ষু অবস্থায় আছেন। তিনি গেলো মঙ্গলবার আমাকে অনুরোধ করেছেন, আপনাদের মাধ্যমে গোটা দেশবাসীর কাছে তিনি দোয়া চাইতে। তার এই অনুরোধটি আপনাদের জানাতে বলেছেন।

স্লোশেন ক্যাটারিং ক্যানসার সেন্টারে ভর্তি হওয়ার পর গত ২৭ অক্টোবর সাদেক হোসেন খোকার শ্বাসনালী থেকে টিউমার অপরাসরণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে তার পরিবার।

জানা যায়, যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার পর প্রথমে উঠেছিলেন নিউইয়র্কে বোনের বাড়িতে। পরে বাসা ভাড়া নেন নিউইয়র্কের কুইন্সের ইস্ট এলমহার্স্টে। সেখানে বিশ্বখ্যাত ক্যান্সার বিশেষায়িত হাসপাতাল মেমোরিয়াল সোয়ান কেটারিংয়ের চিকিৎসক জেমস জে শিহর তত্ত্বাবধানে তার চিকিৎসা চলছে।

পরিবারের সদস্যরাও জানিয়েছেন, সাদেক খোকার অবস্থা সংকটাপন্ন। যুক্তরাষ্ট্র থেকে এ পর্যন্ত তার অবস্থার উন্নতির খবর পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন তারা।

মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর নেতৃত্বাধীন ন্যাপের রাজনীতি থেকে খোকা যুক্ত হন বিএনপির রাজনীতিতে শুরু থেকে। ঢাকা মহানগরের সভাপতি সাদেক হোসেন খোকার ক্রীড়া সংগঠন হিসেবেও ক্রীড়াঙ্গনে ব্যাপক পরিচিত রয়েছে। ১৯৯১ ও ২০০১ সালে ঢাকার সূত্রাপুর-কোতয়ালী আসন থেকে তিনি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

সাদেক হোসেন খোকা অবিভক্ত ঢাকা সিটি করপোরেশনের নির্বাচিত মেয়র এবং খালেদা জিয়ার মন্ত্রিসভার মৎস্য ও পশু সম্পদমন্ত্রী ছিলেন।

২০১৪ সালের ১৪ মে সাদেক হোসেন খোকা চিকিৎসার জন্য যুক্তরাষ্ট্র যান। সেখানে থাকা অবস্থায় তার বিরুদ্ধে দেশে কয়েকটি দুর্নীতি মামলা হয় এবং কয়েকটিতে সাজাও দেয় আদালত। -ডেস্ক