(দিনাজপুর২৪.কম) ‘আলোকিত ইসলাম’ নামে একটি খসড়া বিল তৈরি করেছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। এর সমালোচনা করে বিবৃতি দিয়েছে তুর্কি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। আঙ্কারা বলছে, বিতর্কিত এই বিলটি কেবল ক্রমবর্ধমান জেনোফোবিয়া, বর্ণবাদ, বৈষম্য এবং ইসলামফোবিয়া সৃষ্টিতে জ্বালানির যোগান দেবে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আমাদের শান্তির ধর্মকে (ইসলাম) আলোকিত করার প্রয়াসে মিথ্যা ও বিকৃত ধারণার অধীনে বিল তৈরি করা অন্য কারো কাজ নয়। আমরা মনে করি যে, এই বিলের ভিত্তি তৈরির মানসিকতা ফ্রান্সের সমস্যার সমাধান না করে উল্টো মারাত্মক পরিণতি ঘটাতে পারে।

‘আইনের মাধ্যমে বিশ্বস্ত ব্যক্তিদের দ্বারা গৃহীত ধর্মীয় সেবা এবং ব্যাখ্যা নির্ধারণ করার অধিকার রাষ্ট্রগুলোর নেই। তাছাড়া আইন ও মানবাধিকারের ক্ষেত্রে ইউরোপীয় ইসলাম এবং ফরাসি ইসলাম সাংঘর্ষিক।’

এটি একেবারে ধর্মনিরপেক্ষ দৃষ্টিভঙ্গি থেকে অন্যের দিকে তাকানোর পরিবর্তে ধর্মীয় ও নৈতিক মূল্যবোধের প্রতি শ্রদ্ধাশীল এবং গঠনমূলক বক্তব্য গ্রহণের আহ্বান জানায়। আমরা এই বিলের অগ্রগতি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করবো এবং দ্বিপক্ষীয় ও বহুপাক্ষিক প্ল্যাটফর্ম থেকে ফ্রান্সের অপূর্ণতা উত্থাপন অব্যাহত রাখবো, বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

এর আগে গত ২ অক্টোবর ম্যাক্রোঁ মন্তব্য করেছিলেন যে, ইসলাম এমন একটি ধর্ম, যা বর্তমানে সারা বিশ্বের মধ্যেই সংকটে রয়েছে। সে জন্য তার সরকার ১৯০৫ সালের আইনকে আরো শক্তিশালী করতে ডিসেম্বরে একটি বিল উপস্থাপনের পরিকল্পনা করছে। যা ফ্রান্সে চার্চ-ধর্ম এবং রাষ্ট্রকে আনুষ্ঠানিকভাবে পৃথক করবে। এরপর থেকেই মন্তব্যটি নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। -ডেস্ক