মুন্সীগঞ্জ,(দিনাজপুর২৪.কম) পূর্ব বিরোধের জের ধরে মুন্সীগঞ্জে রবিন নামে সৈনিকলীগের এক কর্মীর বসতবাড়িতে হামলা ও ভাংচুর চালিয়েছে যুবলীগকর্মী রুবেল ও তার লোকজন। হামলা চলাকালে মোঃ স্বপন মেম্বার (৪৫), রহিমা বেগম (৬০) ও পান্না বেগম (২৮)সহ কমপক্ষে ৫ জন আহত হয়। আহতদের স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।
গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় শহরের গণকপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ১ রাউন্ড গুলি ও ১ রাউন্ড গুলির খোসা উদ্ধার করে। ঘটনার সাথে জড়িত সন্ধেহে মোঃ শামিম (২৩) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
মুন্সীগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ ইউনুচ আলী ঘটনার সত্যতা দিনাজপুর২৪.কমকে নিশ্চিত করে জানান, গত ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুর শোক দিবসের র‌্যালি বের করাকে কেন্দ্র করে যুবলীগকর্মী রুবেল ও সৈনিকলীগ কর্মী রবিনের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে যুবলীগের লোকজন রবিনকে মারধর করার পরিপ্রেক্ষিতে রবিন ও তার লোকজন শহরের মানিকপুর এলাকায় রুবেলের দোকানঘর ভাংচুর চালায়। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে যুবলীগকর্মী রুবেল ও তার লোকজন সোমবার সন্ধ্যায় রবিনের বসতবাড়িতে হামলা ও ভাংচুর চালায়। এ সময় বাড়ির লোকজন বাধা দিলে প্রতিপক্ষের হামলায় কমপক্ষে ৫ জন আহত হয়।
তিনি আরও জানান, এ ঘটনায় সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারের প্রক্রিয়া চলছে বলেও নিশ্চিত করেছেন পুলিশের ওই কর্মকর্তা।(ডেস্ক)