(দিনাজপুর২৪.কম)মিয়ানমার উপকূল থেকে সে দেশের নৌবাহিনীর উদ্ধারকৃত ২০৮ জন অভিবাসীর মধ্য থেকে দ্বিতীয় দফায় আজ শুক্রবার আরও ৩৭ জন বাংলাদেশি নাগরিককে ফেরত আনা হচ্ছে।এই ৩৭ বাংলাদেশি নাগরিককে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম সীমান্ত দিয়ে গ্রহণ করতে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে।

কক্সবাজার ১৭ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল খন্দকার সাইফুল আলম আজ মিয়ানমার থেকে ঘুমধুম সীমান্ত হয়ে দ্বিতীয় দফায় ৩৭ বাংলাদেশিকে ফেরত আনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে গত ৮ জুন প্রথম দফায় ১৫০ জন শনাক্তকৃত অভিবাসন প্রত্যাশী বাংলাদেশিকে বিজিবির মাধ্যমে মিয়ানমার থেকে ফেরত আনা হয়েছিল। যাচাই-বাছাই করে ১৫০ জনের মধ্যে এক দালালসহ দু’জন রোহিঙ্গাকে শনাক্ত করে কক্সবাজার জেলা ও পুলিশ প্রশাসন।

গত ২১ মে মিয়ানমার উপকূল থেকে ২০৮ জন অভিবাসীকে উদ্ধার করেছিল। মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ এসব মালয়েশিয়াগামী অভিবাসীদের ২০৮ জনের মধ্যে ২০০ জনকে বাংলাদেশি নাগরিক দাবি করে আসছে। কিন্তু কূটনৈতিক পর্যায়ে বাংলাদেশে মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে প্রেরিত তালিকা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় হয়ে সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশের মাধ্যমে প্রথম দফায় প্রেরিত ১৫০ জন অভিবাসীদের তালিকা যাচাই করে তা মিয়ানমারের নিকট প্রেরণ করা হয়। দ্বিতীয় দফায় প্রেরিত ৩৭ জনের তালিকাও একই কায়দায় যাচাই করে তা মিয়ানমারের নিকট প্রেরণ করা হয়।(ডেস্ক)