(দিনাজপুর২৪.কম) মিস যুক্তরাজ্য বিজয়ী জোয়ি স্মেল নিজের খেতাব ফিরিয়ে দিলেন। একইসঙ্গে ‘মিস যুক্তরাজ্য’ বিজয়ী হিসেবে পাওয়া মুকুটও ফিরিয়ে দিয়েছেন। শুধু তাই নয়, চলতি মাসে ইকুয়েডরে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া ‘মিস ইউনাইটেড কন্টিনেন্টস-২০১৭’ থেকে নিজের নাম উঠিয়ে নিয়েছেন নটিংহ্যামের এই সুন্দরী। শরীরের ওজন কমাতে বলায় এই মিস যুক্তরাজ্য সুন্দরী এমনটা করলেন।

আসন্ন ‘মিস ইউনাইটেড কন্টিনেন্টস-২০১৭’-প্রতিযোগিতায় যারা ‘সাইজ-৬’ ক্যাটাগরিতে পরে শুধু তারাই অংশ নিতে পারবে। জোয়ি স্মেল ‘সাইজ-১০’ ক্যাটাগরিরতে স্থান পান। তাই আয়োজকদের পক্ষ থেকে তাকে ওজন কমাতে বলা হয়। নির্দিষ্ট ‘ডায়েট’ নির্দেশনাও দেয়া হয় তাকে। কিন্তু কর্তৃপক্ষের এমন সিদ্ধান্ত মেনে নিতে পারেনি জোয়ি স্মেল। আর তাই এর প্রতিবাদ করতে প্রতিযোগিতা থেকে নিজেকে সরিয়ে আনেন।

তিনি বলেন, ‘যখন আমি জানলাম যে আয়োজক কর্তৃপক্ষ আমাকে ‘অনেক মোটা’ হিসেবে উল্লেখ করেছেন এবং আমাকে ওজন কমাতে ডায়েট চার্ট দিয়েছেন তখন আমি খুবই অবাক হই। আমার মনে হয় নারীদের ক্ষমতা আরও বৃদ্ধি হওয়া উচিত এবং স্বাস্থ্যবান ও শিক্ষিত রোল মডেল হওয়াতে দোষের কিছু নেই।’

এ বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এক বার্তায় ২৮ বছর বয়সী এই মডেল বলেন, “আমি নিজেকে ভালবাসি এবং কারও জন্যই নিজেকে পরিবর্তন করব না। কোন আয়োজক কর্তৃপক্ষ যদি আমার যোগ্যতাকে মূল্যায়ন না করে আমাকে সাইজ ১০ থেকে ৬ হতে হবে, তবে এটা তাদের ক্ষতি।

এরইমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে মডেল জোয়ি স্মেল এর এমন বার্তা সমর্থন করে মন্তব্য দিচ্ছেন অনেক নারী। তারা বলেন, মডেল হিসেবে শুধুমাত্র ‘স্লিম’ মেয়েদের নেয়াটা বৈষম্যমূলক আচরণ।  -ডেস্ক