(দিনাজপুর২৪.কম) জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জেএসডি সভাপতি আ স ম রব বলেছেন, আন্দোলন কখনো হারিয়ে যায়না বা ভেসে যায় না। বরং কালের আবর্তে আন্দোলন পুঞ্জিভুত হয়, আরো শক্তি নিয়ে জোরালো হয়। তিনি বলেন, ৩০ ডিসেম্বর গণতন্ত্র নিহত হয়েছে আর আহত হয়েছে এদেশের ১৬ কোটি জনগণ।এরই ধারাবাহিকতায় ডাকসু, উপজেলা আর ঢাকা সিটি উত্তর নির্বাচনে ভোট আছে ভোটার নেই। দেশের মানুষ ভোটকে প্রত্যাখ্যান করেছে। এটাই আওয়ামী লীগের বড় অর্জন বলে তিনি মন্তব্য করেন।

রোববার বিকেলে কাকরাইলস্থ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারর্স ইন্সটিটিউট মিলনায়তনে বিএনপির সাবেক মহাসচিব কে এম ওবায়দুর রহমানের শোকসভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। কে এম ওবায়দুর রহমান স্মৃতি সংসদের সভাপতি টি এম গিয়াসউদ্দিনের সভাপতিত্বে শোকসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বিএনপি সহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। আরো বক্তব্য রাখেন দলের ভাইস চেয়ারম্যান ও প্রবীন রাজনীতিবিদ শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন, নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, বিশষ্ট সাংবাদিক ও কলামিস্ট মাহফুজ উল্লাহ, বিএনপি নেতা নিতাই রায় চৌধুরী ছাড়া দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

আ স ম রব আরো বলেন, মুক্তিযোদ্ধের ইতিহাস শুধু দলীয়করণ আর পারিবারিককরণ হয়নি। এই ইতিহান আজ ব্যক্তিকরণ হয়েছে। এটা দু:খজনক। তিনি বলেন, আন্দোলন হারিয়ে যায়নি। সব আন্দোলন এক সময়ে সুদে আসলে বুঝে নেয়া হবে। তিনি বলেন, আমরা আওয়ামী লীগের ভোট চুরির কথা এক হাজার বছর বক্তব্য দিয়েও হয়তো জনগণকে বোঝাতে পারতাম না । কিন্তু ৩০ ডিসেম্বরের একদিনের নির্বাচনেই জনগণ ভোট চোর চিনে ফেলেছে। আওয়ামী লীগকে আর কখনো জনগন বিশ্বাস করবে না বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

আরো পড়ুন : ভোটের অংক নয়, শান্তিপূর্ণ পরিবেশটাই মুখ্য : ইসি সচিব
উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তৃতীয় ধাপের ভোট অনুষ্ঠিত হয়েছে রোববার। আগের দুই ধাপের মতো তৃতীয় ধাপের কেন্দ্রে ভোটার অবস্থা খুব একটা দেখা যায়নি। এ প্রসঙ্গে রোববার আগারগাঁওস্থ নির্বাচন ভবনের মিডিয়া সেন্টারে নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ জানিয়েছেন, নির্বাচনে কত শতাংশ ভোট পড়ল তা নিয়ে নির্বাচন কমিশনের কোনো মাথা ব্যথা নেই।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, একটি জোট নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেনি। ভোট না দেয়ার জন্যও তাদের প্রচারণা আছে। এসব আপনাদের খেয়াল রাখতে হবে। এ সবকিছু মিলিয়ে কমিশন বলেছে নির্বাচনে কত শতাংশ ভোট পড়ল এটা নিয়ে আমাদের কোনো মাথা ব্যথা নেই। বিষয়টা হলো শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচনটা অনুষ্ঠিত হয়েছে কিনা।

কম ভোটারের উপস্থিতিতে ভোট গ্রহণযোগ্যতা পেল কি-না জানতে চাইলে তিনি বলেন, কত শতাংশ ভোট দিতে হবে বা গ্রহণযোগ্যতা পাবে কি-না এজন্য আমাদের দেশে কোনো আইন নেই।

নির্বাচনের চিত্র তুলে ধরে তিনি বলেন, রোববার ১১৭টি উপজেলায় ভোটগ্রহণ করার কথা ছিল। কিন্তু অনিয়মের কারণে কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলার ভোট বন্ধ করা হয়েছে এবং এছাড়া সেখানে দায়িত্বে থাকা সেখানকার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ও ওই থানার ওসিকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। এছাড়া এ জন্য একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আরো কেউ এর সঙ্গে জড়িত হলে তাদেরকেও বিচারের আওতায় আনা হবে।

অনিয়মের কারণে এ ধাপে মোট ৯ হাজার ২৯৮টি কেন্দ্রের মধ্যে ১৪টি কেন্দ্রের ভোট বন্ধ করা হয়েছে বলেও জানান সচিব।

সচিব জানান, চট্টগ্রামের চন্দনাইশে দুইপক্ষের সংঘর্ষে একজন পুলিশ কনস্টেবল গুলিতে আহত হয়। তাকে সেখান থেকে উদ্ধার করে হেলিকপ্টারে করে এনে ঢাকার হৃদরোগ ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছে।

মোটোমুটি ভালো ভোট হয়েছে উল্লেখ করে সচিব বলেন, নির্বাচন কমিশন আজকের ভোটে মোটামুটি সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। এ ধাপে ৪০ থেকে ৪৫ ভাগ ভোট পড়তে পারে বলে আশা প্রকাশ করেন সচিব।

এসময় জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম, ইসির যুগ্ম-সচিব ফরহাদ আহাম্মদ খান ও এসএম আসাদুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।-ডেস্ক