mardaripur-dinajpur24(দিনাজপুর২৪.কম) আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে মাদারীপুরের শিবচরে এক যুবলীগ কর্মী ও এক মুদি দোকানীকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা ও সাবেক চেয়ারম্যান ইব্রাহিম শিকদার এবং আতিক মাতবর গ্রুপের মধ্যে আজ মঙ্গলবার সকালে এ সংঘর্ষ হয়। নিহতরা হলেন- আতিক মাতবরের ছোট ভাই যুবলীগকর্মী আরশেদ মাদবর (৩৫) ও তার গ্রুপের শাহজাহান দড়ানী (৪৫)। এ সময় আহত হন বেশ কয়েকজন। তবে তাদের নাম জানা যায়নি।
শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুস সাত্তার দিনাজপুর২৪.কম কে জানান, এলাকার আধিপত্য নিয়ে কুতুবপুরের আওয়ামী লীগ নেতা আতিক মাতবর ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ইব্রাহিম শিকদারের মধ্যে বেশ কিছুদিন ধরেই দ্বন্দ্ব চলছিল। ইব্রাহিমের সমর্থক হিসেবে স্থানীয় ইদ্রিস হাওলাদারের বাড়িতে মঙ্গলবার আতিক মাতবরের পক্ষের কয়েকজনকে দাওয়াত দেয়া হলে গত দুই দিন ধরে সেই দ্বন্দ্ব চরমে উঠে। দুই পক্ষের মধ্যে চরম উত্তেজনা চলছিল। এর মধ্যে আতিক মাতবরের ভাই স্থানীয় যুবলীগকর্মী আরশেদ মাতবর সকালে বাড়ির পাশের শাহজাহান দরানীর দোকানে গেলে ইব্রাহিমের লোকজন তাদের ঘেরাও করে। তারা প্রথমে শাহজাহানকে গুলি করে হত্যা করে। পরে আরশেদকে পাশের ক্ষেতে নিয়ে গুলি করে মেরে লাশ পুকুরে ফেলে দেয়। পরে এলাকার লোকজন লাশ উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়।
এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। বিপুল সংখ্যক পুলিশ সেখানে অবস্থান নিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছে বলে ওসি জানান।