(দিনাজপুর২৪.কম) পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় অবৈধ গর্ভপাতে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে হেলেনা আক্তার (১৬) নামের এক কিশোরীর মৃত্যু হয়েছে। পুলিশ শুক্রবার রাতে উপজেলার টিয়ারখালী গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে ওই কিশোরীর লাশ উদ্ধার করে শনিবার সকালে পিরোজপুর জেলা মর্গে পাঠিয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, গত ২৮ নভেম্বর উপজেলার টিয়ারখালী গ্রামের মজনু হাওলাদারের ছেলে হানিফ হাওলাদার প্রতিবেশী কিশোরী হেলেনা আক্তারকে নিজ বাড়িতে ডেকে ধর্ষণ করে। লোকলজ্জার ভয়ে মেয়েটি ঘটনাটি গোপন রাখে। পরবর্তীতে মেয়েটির ঋতুস্রা বন্ধ হয়ে যায়। এবং তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন।

জানাজানি হলে অভিযুক্ত ধর্ষক ও তার মা জাহানারা বেগম মেয়েটিকে নিয়ে পার্শ্ববর্তী বামনা উপজেলার দক্ষিন ডৌয়াতলা মদিনা বাজারে আলিফ মেডিকেল হলের মো. আলমগীর হাওলাদার নামের এক গ্রাম্য ডাক্তারের মাধ্যমে চিকিৎসা করান। এতে মেয়েটির অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ শুরু হয়।

পরে মেয়েটির অবস্থা গুরুতর হলে স্থানীয় সাবেক ইউপি সদস্য খলিলুর রহমান ইরান ও নুরুন্নবী মুসুল্লীর পরামর্শে গত ৪ জানুয়ারি মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। সেখানে অবস্থার অবনতি ঘটলে কর্তব্যরত চিকিৎসক বরিশাল শেরে-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২৮ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার দিবাগত ভোর রাতে মেয়েটির মৃত্যু হয়।

এ বিষয় মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. শওকাত আনোয়ার জানান, ‘বাদী পক্ষ ঘটনাটি আড়াল করার চেষ্টা করেছিল। পরে তদন্ত করে ভুক্তভোগী পরিবারটিকে আইনি সহায়তা দিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পিরোজপুর জেলা মর্গে পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্ত আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে।’_ডেস্ক