গ্রেফতার এনু ও রুপন। ছবি: সংগৃহীত

(দিনাজপুর২৪.কম)বিদেশে পাড়ি দেয়ার পরিকল্পনা ছিল মতিঝিলের ক্যাসিনো ব্যবসার মূলহোতা এনামুল হক ওরফে এনু ভূঁইয়া এবং রুপন ভূঁইয়া। তারা ভুয়া পাসপোর্ট ব্যবহার করে বিদেশে যাওয়ার চেষ্টায় ছিলেন। এই তথ্য জানিয়েছেন পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ-সিআইডি।

সোমবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করে এসব কথা জানান সিআইডির ডিআইজি ইমতিয়াজ আহমেদ।

তিনি বলেন, ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান শুরু হওয়ার পরই তারা কক্সবাজার গিয়ে আত্মগোপন করে থাকে। সেখান থেকেই তারা ভুয়া পাসপোর্ট বানিয়ে বিদেশে পাড়ি দেয়ার পরিকল্পনা করেন। প্রথমে মিয়ানমার, ভারত; সর্বশেষ নেপাল যাওয়ার পরিকল্পনা ছিল তাদের।

গেণ্ডারিয়ার এ দুই ত্রাসকে ধরার বিষয়ে ডিআইজি বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রোববার কেরানীগঞ্জ থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকালে তাদের কাছ থেকে আনুমানিক ৪০ লাখ টাকা পাওয়া যায়।

প্রসঙ্গত গত বছরের অক্টোবরে ক্যাসিনোবিরোধী অভিযানে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী রূপনের বাসা থেকে ১৭ লাখ ১৬ হাজার ৩০০ টাকা এবং ৫ হাজার ১৬৩ গ্রাম ওজনের স্বর্ণালঙ্কার, যার আনুমানিক মূল্য ২ কোটি ৫০ লাখ টাকা জব্দ করে।

গেণ্ডারিয়া থানা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি এনামুল হক এবং তার ভাই থানা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রূপন ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে দুটি আলাদা মামলা করেছিল দুদক। এ ছাড়া তাদের বিরুদ্ধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকে করা বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে।

এই দুজনের বাসায় টাকা রাখার জায়গা না থাকায় স্বর্ণ কিনতেন। ঢাকায় তাদের অন্তত ১৯টি বাড়ি রয়েছে। সবই করেছেন অবৈধ আয়ের মধ্য দিয়ে।-ডেস্ক