আইন ওসালিশ কেন্দ্রের (আসক) লোগো

(দিনাজপুর২৪.কম) মানবাধিকার পর্যবেক্ষণ সংস্থা আইন ও সালিশ কেন্দ্র (আসক) জানিয়েছে, নামসর্বস্ব আসক’র কারণে তারা বিব্রত বোধ করছে। আসক বলছে, সম্প্রতি আইন সহায়তা কেন্দ্র (আসক) বা আইন সহায়তা কেন্দ্র ফাউন্ডেশন নামে একটি বেসরকারি সংগঠন কার্যক্রম পরিচালনা করছে। আইনগত সহায়তা প্রদান কিংবা মানবাধিকার সুরক্ষায় ভূমিকা রাখার নামে এই সংগঠনের নেতিবাচক কিংবা বিতর্কিত কার্যক্রম অত্যন্ত নিন্দনীয় এবং দুঃখজনক। নামের মিল থাকার কারণে সাধারণ মানুষসহ সংবাদমাধ্যমকর্মীরা বিভ্রান্ত হতে পারেন। বিভ্রান্তি এড়াতে সকলকে বিষয়টি বিবেচনায় নেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছে আইন ও সালিশ কেন্দ্র (আসক)।

আসকের নির্বাহী পরিচালক গোলাম মনোয়ার কামাল সাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ১৯৮৬ সালে দেশের ৯ জন প্রতিথযশা বরেণ্য নাগরিকের উদ্যোগে আইন ও সালিশ কেন্দ্র (আসক) প্রতিষ্ঠিত হয় এবং প্রতিষ্ঠাকাল থেকেই আসক নিয়মিতভাবে আইন সহায়তা প্রদানসহ মানবাধিকার সুরক্ষা নিয়ে কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। আসক বিনামূল্যে আইন সহায়তা কার্যক্রম পরিচালনাসহ সহায়তা প্রার্থীদের স্বল্পকালীন আশ্রয় প্রদান, কাউন্সেলিং সেবা প্রদান করে থাকে।

আইন ও সালিশ কেন্দ্র (আসক) এর কার্যক্রম সমগ্র বাংলাদেশে পরিচালনার জন্য ঢাকা ব্যতীত কোথাও কোনো কার্যালয় নাই। শুধুমাত্র রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর জন্য পরিচালিত প্রকল্প কর্মসূচি বাস্তবায়নের সুবিধার্থে সীমিত আকারে কক্সবাজারের উখিয়ায় একটি অস্থায়ী অফিস পরিচালিত হচ্ছে। আসকের সকল ধরনের কার্যক্রম পরিচালনা করার জন্য ঢাকায় একটি মাত্র অফিস, যা ২/১৬, ব্লক-বি, লালমাটিয়া, থানা-মোহাম্মদপুরে অবস্থিত। কোনো ধরনের বিভ্রান্তি এড়াতে সরকারি এবং সাপ্তাহিক ছুটি ব্যতীত +৮৮-০২-৮১০০১৯২, ৮১০০১৯৫, ৮১০০১৯৭ ও ০১৭১৪০২৫০৬৯ (সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা) নাম্বারসমূহে যোগাযোগ করার অনুরোধ জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। -সূত্র : আমাদের সময়