ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্টের মুখপাত্র নিড প্রাইস ও পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান

(দিনাজপুর২৪.কম) ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে সীমারেখা লাইন অব কন্ট্রোলে সন্ত্রাসী অনুপ্রবেশের ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এ বিষয়ে কাশ্মীরে পাকিস্তান একটি ‘গঠনমূলক ভূমিকা’ পালন করবে বলে আশা প্রকাশ করেছে দেশটি। যুক্তরাষ্ট্রে স্টেট ডিপার্টমেন্টের মুখপাত্র নিড প্রাইস এ তথ্য জানিয়েছেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, গত বৃহস্পতিবার ওয়াশিংটনে এক ব্রিফিংয়ে নিড প্রাইস বলেছেন, ‘লাইন অব কন্ট্রোলে যারা অনুপ্রবেশের চেষ্টা করছে তাদের প্রতি নিন্দা জানাই।’

তিনি আরও বলেন, ‘সীমান্তে যুদ্ধ বিরতির ব্যাপারে ভারত-পাকিস্তানের যৌথ বিবৃতিকে আমরা স্বাগত জানাই। উভয় পক্ষের মধ্যে যোগাযোগ বৃদ্ধি ও সীমান্তে উত্তেজনা ও সহিংসতা কমানোর ব্যাপারে দুই দেশের প্রচেষ্টাকে আমরা উৎসাহ দেই।’

পাকিস্তান যুক্তরাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার উল্লেখ করে নিড প্রাইস বলেন, ‘সীমান্তে অনুপ্রবেশের ব্যাপারে নজর রাখবে ওয়াশিংটন।’ পাকিস্তানকে এ ব্যাপারে কাশ্মীরে ‘গঠনমূলক ভূমিকা’ পালনের আহ্বান জানান তিনি।

ভারত-পাকিস্তান ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্রের সরাসরি জড়িত হওয়ার বিষয় এড়িয়ে স্টেট ডিপার্টমেন্টের মুখপাত্র বলেন, ‘যখন ওই ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্রের সহযোগিতার প্রয়োজন হবে তখন দুই দেশের মধ্যে সরাসরি আলাপের জন্য সহযোগিতা করা হবে।’

ওয়াশিংটনের সঙ্গে ইসলামাবাদের সম্পর্কের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘পাকিস্তান আমাদের গুরুত্বপূর্ণ অংশীদের যাদের সঙ্গে অনেক কিছু ভাগাভাগি করি। আফগানিস্তানসহ অন্য সীমান্তের ব্যাপারে সুস্পষ্টভাবে পাকিস্তানের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। তাই কাশ্মীর, আফগানিস্তান ও আমাদের সঙ্গে অন্য বিষয়ে একটি ‘গঠনমূলক ভূমিকা’ পালনে পাকিস্তানকে আহ্বান জানাই।’

দুই প্রতিবেশী দেশের মিলিটারি অপারেশনের ডিরেক্টররা গত বুধবার সীমান্তে যুদ্ধবিরতির বিষয়টি পুনর্বিবেচনার কথা জানান। সীমান্তের পরিস্থিতি সম্পর্কে ‘অবাধ, অকপট ও সৌহার্দ্যপূর্ণ’ মূল্যায়নের কথা উল্লেখ করে তাদের যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়েছে, পারস্পরিক টেকসই শান্তির লক্ষ্যে দুই পক্ষ  একে অপরের মূল সমস্যা এবং উদ্বেগের সমাধান করতে সম্মত হয়েছেন। -ডেস্ক