(দিনাজপুর২৪.কম) পাঁচ শতাধিক রান করার পর বাংলাদেশ স্বপ্ন দেখছিল শ্রীলঙ্কাকে দ্রুত অল-আউট করে মাঝারি কিংবা বড় লিড নেয়ার। কিন্তু সেই আশায় গুঁড়েবালি! উল্টো বড় লিড নিতে যাচ্ছে সফরকারীরা। বাংলাদেশি বোলাররা হতোদ্যম হয়ে পড়েছে। ফিল্ডাররা হাতে তৈলাক্ত পদার্থ মেখে নেমেছে! একের পর এক ক্যাচ মিস তারই প্রমাণ। চতুর্থ উইকেটে ইতিমধ্যে ৫২ রানের জুটি হয়ে গেছে। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত সফরকারীদের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ৪৯৪ রান।

১ উইকেটে ১৮৭ রান নিয়ে আজ তৃতীয় দিনের খেলা শুরু করে শ্রীলঙ্কা। দিনের প্রথম সেশনে কোনো সাফল্য পায়নি বাংলাদেশ। বরং শুরুতেই ২০০ বলে ১০ চার ১ ছক্কায় ক্যারিয়ারের চতুর্থ সেঞ্চুরি তুলে নেন লঙ্কান ওপেনার কুশল মেন্ডিস। লাঞ্চে পর মুস্তাফিজের বলে ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা লিটন দাসের গ্লাভসবন্দি হলে ভাঙে ৩০৮ রানের বিশাল দ্বিতীয় উইকেট জুটি। আউট হওয়ার আগে ২২৯ বলে ২১ বাউন্ডারি আর ১ ওভার বাউন্ডারিতে ১৭৩ রানের অতিমানবীয় ইনিংস উপহার দেন এই টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান।

এরপর রোশেন সিলভাকে নিয়ে তৃতীয় উইকেটে ১০৭ রানের জুটি গড়েন কুশল মেন্ডিস। ডাবল সেঞ্চুরির খুব কাছে গিয়ে আবারও মিস করেন কুশল। তার ৩২৭ বলে ২২ চার ২ ছক্কায় ১৯৬ রানের অনন্য ইনিংসটি শেষ হয় তাইজুল ইসলামের বলে মুশফিকুর রহিমের হাতে ধরা পড়ে। ৮৯ বলে হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন রোশান।

১৭৩ রানের ইনিংস খেলার পথে প্রথমবারের মত দেড়শ রানের গণ্ডি পার হয়েছেন ধনাঞ্জয়া। একইসঙ্গে শ্রীলঙ্কার হয়ে সবচেয়ে কম ১২ টেস্টে এক হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করেছেন তিনি। বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসের সংগ্রহ ৫১৩ রান। ১৭৬ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন মুমিনুল হক। এছাড়া মুশফিক ৯২ আর অধিনায়ক মাহমুদ উল্লাহ অপরাজিত ৮৩ রানের ইনিংস খেলেন। -ডেস্ক