(দিনাজপুর২৪.কম) দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি ও তার সংলগ্ন বড়পুকুরিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র, দুই প্রকল্পের মাঝখানে রেললাইনটি  কয়েকদিনের অতি বৃষ্টির কারণে রেল লাইনে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। এতে করে পার্বতীপুর হতে ফুলবাড়ী পর্যন্ত রেল চলাচলের বিগ্ন ঘটছে। রেল লাইনের দুই পার্শ্বের  পশ্চিম পার্শ্বে ৮০ফিট ও পূর্ব পার্শ্বে ১০০ ফিট রেল লাইনের জায়গা থাকলেও কয়লা খনি, তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র ঐ জায়গা তাদের মধ্যে নিয়ে নেয়। এছাড়া বাকি রেলওয়ের জায়গা স্থানীয় ব্যক্তিরা দখল করে নিয়েছে। পানি বের হওয়ার কেনো জায়গা নেই। রেলওয়ের জায়গা গুলি যে ভাবে দখল করা হয়েছে কোন সময় ট্রেন দুঘর্টনা ঘটলে বড় ধরনের ক্ষতি সাধন হবে ঐ এলাকায়। রেলগুটি সংলগ্ন দ্ইু পার্শ্বে পাকা দালান গড়ে তোলা হয়েছে। রেলওয়ের পাকশি ও পার্বতীপুর ভূমি বিভাগ লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়ে নাম সাম টাকা সরকারের রাজস্ব দেখিয়ে কতিপয় ব্যক্তিকে সেই জায়গা লিজ দেওয়া হয়েছে। এভাবে চলতে থাকলে রেলওয়ের জায়গা গুলি দিনে দিনে প্রভাবশালীদের দখলে চলে যাবে। এদিকে বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি কর্তৃপক্ষ রেলওয়ের কর্তৃপক্ষকে এ বিষয়টি অবগত করলে এবং এই জায়গা খালি রাখার জন্য পত্র দিলে তারা বিষয়টি তদন্ত করে দেখতেন। কিন্তুু বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি কর্তৃপক্ষের এব্যাপারে কোন মাথা ব্যাথা নেই।