(দিনাজপুর২৪.কম) ব্রিটিনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানককসহ করোনাবিরোধী তিন প্রধান কর্ণধার এই প্রাণঘাতী ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

ডাউনিংস্ট্রিটের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, গতকাল (শুক্রবার) প্রধানমন্ত্রীর শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া গেছে। এনএইচএস নম্বর ১০-এ তার নমুনা পরীক্ষা করা হয়। তিনি এখন থেকে সেলফ আইসোলেশনে থেকে রাষ্ট্রীয় কার্যক্রম পরিচালনা করবেন।

এদিকে, শুক্রবার বরিস জনসনের করোনায় আক্রান্তের কয়েক ঘণ্টা পর ব্রিটিশ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানককের এই ভাইরাসে আক্রান্তের খবর জানায় ব্রিটিশ গণমাধ্যম গার্ডিয়ান।

ম্যাট হ্যানকক তার টুইটারে শুক্রবার সন্ধ্যায় বলেন, ‘করোনাভাইরাসের বড় লক্ষণ ছিল না আমার শরীরে। তবে পরীক্ষায় করোনাভাইরাস ধরা পড়ে। এখন স্বেচ্ছায় আইসোলেশনে রয়েছি। বাসা থেকে অফিস করব।’

এ ছাড়া, ব্রিটেনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা অধ্যাপক ক্রিস হোয়াইটি শুক্রবার জানিয়েছেন, তিনি নিজের শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতির লক্ষণ অনুভব করছেন।এরফলে ব্রিটেনে করোনাভাইরাস বিরোধী যুদ্ধের প্রধান তিন কর্ণধারই স্বেচ্ছা-আইসোলেশনে চলে গেছেন।

এর আগে ব্রিটিশ রাজ পরিবারের সদস্য প্রিন্স চার্লসের শরীরে পাওয়া যায় করোনা ভাইরাস।

এদিকে আমেরিকার জন হপকিন্সস বিশ্ববিদ্যালয় জানিয়েছে, দেশটিতে এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এক হাজার ৫৪৪ ব্যক্তি প্রাণ হারিয়েছে।

এ ছাড়া, আমেরিকায় এই রোগে আক্রান্তের সংখ্যা এক লাক ৫ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। করোনায় আক্রান্তের সংখ্যার দিক থেকে চীনসহ অন্য যেকোনো দেশকে ছাড়িয়ে গেছে আমেরিকা। -ডেস্ক